ঢাকা, সোমবার, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৬ জুলাই ২০২১, ১৫ জিলহজ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

হোটেল-রেস্তোরাঁর ভ্যাট ৫ শতাংশ করার দাবি মালিক সমিতির

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩৪ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২১
হোটেল-রেস্তোরাঁর ভ্যাট ৫ শতাংশ করার দাবি মালিক সমিতির ছবি: ডি এইচ বাদল

ঢাকা: ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে সব হোটেল-রেস্তোরাঁর ভ্যাট ৫ শতাংশ করার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির নেতারা। এছাড়া তারা ভ্যাট দেওয়ার জন্য এনবিআরের আলাদা ইউনিট, রেস্তোরাঁর জন্য ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার স্থাপন ও শিল্পের মর্যাদা চেয়েছেন।

 

শনিবার (১২ জুন) সংগঠনের কার্যালয়ে আয়োজিত আসছে অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সরকারের কাছে এসব দাবি তুলে ধরেন সংগঠনের মহাসচিব ইমরান হাসান।  

তিনি বলেন,  চার ও পাঁচ তারকা হোটেল-রেস্তোরাঁর ভ্যাটের হার ১৫ শতাংশ, বিদেশি ফুড বিক্রির জন্য ৭ দশমিক ৫ শতাংশ, কর্মজীবী, শ্রমজীবী, দিনমজুরদের জন্য বাংলা ও স্ট্রিট ফুডের ভ্যাট ৩ থেকে ৫ শতাংশ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ক্যান্টিনের ভ্যাট ২ শতাংশ করার দাবি জানাচ্ছি। এ খাত থেকে ভ্যাট আদায় শতভাগ নিশ্চিত করার জন্য সব প্রকার হোটেল-রেস্তোরাঁয় ইএফডি মেশিন স্থাপন করা হোক। যদিও এখনো অনেক হোটেল-রেস্তোরাঁয় ইএফডি মেশিন স্থাপন করা হয়নি। যেসব হোটেল-রেস্তোরাঁয় ইএফডি মেশিন স্থাপন করা হয়েছে সেসব হোটেলেই মামলা হচ্ছে। একই সঙ্গে তৃতীয়পক্ষের মাধ্যমে ভ্যাট আদায়ের নামে হয়রানি বন্ধ করতে হবে। ভ্যাট আদায়ে সব প্রকার জরিমানা ও অন্যান্য সার-চার্জ বাতিলের দাবি করেন।

ইমরান হাসান বলেন, রেস্তোরাঁর স্থান/স্থাপনার ভাড়ার ভ্যাট ৩ শতাংশ করা উচিত। হোটেল-রেস্তোরাঁ চলমান রাখতে মালিকদের চলতি মূলধন হিসেবে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ সুদে ১০ লাখ থেকে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত এসএমই ঋণ দিতে সরকারের কাছে অনুরোধ করেন তিনি। পচনশীল পণ্য বিক্রেতাদের ঋণ দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের এ বিষয়ে নীতিমালা বা সার্কুলার জারি করা প্রয়োজন।  

এছাড়া হোটেল-রেস্তোরাঁ খাতকে পর্যটন শিল্পের প্রধান নিয়ামক শক্তি হিসেবে শিল্পের মর্যাদা দিতে হবে। কারণ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প কারখানা পরিচালনা করতে যেসব নিয়ম-নীতি বাস্তবায়ন করতে হয় তার চেয়ে বেশি নিয়মের মধ্যে চলে হোটেল-রেস্তোরাঁ।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে হোটেল-রেস্তোরাঁ পরিচালনার জন্য সরকারের ১৩টি সংস্থার অনুমোদন ও সেবা নিতে হয়। এসব সেবাকে একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দেওয়ার জন্য ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার চালু করা দরকার।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের সভাপতি ওসমান গণি, নবাবী ভোজ রেস্টুরেন্টের মালিক লাবনী চৌধরী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩২ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২১
এসই/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa