ঢাকা, সোমবার, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৬ জুলাই ২০২১, ১৫ জিলহজ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

কাগজে কলমে সম্মেলন ব্যয় ৭০ লাখ টাকা

শাহেদ ইরশাদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৩ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০২১
কাগজে কলমে সম্মেলন ব্যয় ৭০ লাখ টাকা

ঢাকা: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি প্রতি বছর মাঠকর্মী-কর্মকর্তাদের নিয়ে বার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন করে কক্সবাজারে। সেখানে কোম্পানির খরচ হয় ৮০-৯০ লাখ টাকা।

মহামারি করোনার কারণে এবছর ২০১৯ সালের সম্মেলন না হলেও কাগজে-কলমে খরচ দেখানো হয় প্রায় ৭০ লাখ টাকা।

বার্ষিক সম্মেলন করার নামে ৭০ লাখ টাকা খরচ দেখানো হলেও বাজেট করা হয়েছিল দুই কোটি ২৭ লাখ টাকার। পরবর্তীকালে সেই বাজেট কাটছাট করে এক কোটি ৩৯ লাখ ৭৫ হাজার টাকায় নামানো হয়। পরবর্তীকালে ২ হাজার ১০০ মাঠকর্মী-কর্মকর্তার বার্ষিক সম্মেলনের জন্য লাজিম মিডিয়া নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিকে ৬৯ লাখ ৮৭ হাজার ৫০০ টাকা দেওয়া হয়েছে। কার্যাদেশ প্রদানের আগেই পরিশোধ করা হয়েছে ১৩ লাখ টাকা।

এ বছর ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির বার্ষিক সম্মেলন কোথায় হয়েছে জানতে লাজিম মিডিয়ার ক্যাশ মেমোতে দেওয়া ফোন নম্বরে কল করে জানতে চাইলে শেখ হাফিজুর রহমান শামীম নিজেকে মালিক দাবি করে বলেন, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের বার্ষিক সম্মেলনের জন্য ৬৯ লাখ টাকা পেয়েছি। সম্মেলন এখনো হয়নি।

সম্মেলনের নামে ৭০ লাখ টাকাই খরচ করা হয়নি। বিভিন্ন প্রকার খরচের অজুহাতে কোম্পানি থেকে আমরা ঋণগ্রস্ত (আইওইউ) মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। অনেক টাকা এখনো সমন্বয় করা হয়নি।

চারমাসের জন্য প্রশাসকের দায়িত্ব পেয়ে স্বেচ্ছাচারি কর্মকাণ্ড চালিয়েছেন বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা। চলতি বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি তাকে ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানির প্রশাসক নিয়োগ দেয় আইডিআরএ। ডেল্টা লাইফে যোগদানের পরই আবেদীন সবকিছু নিজের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে সম্প্রতি আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিবের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির অডিট কমিটির চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র পরিচালক সালাহ উদ্দিন আহমদ।

কোম্পানিতে যোগদানের দুইদিন পরেই আইডিআরএর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দায়ের করা অভিযোগ প্রত্যাহারের চাপও দিয়েছেন। এ বিষয়ে গুলশান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন কোম্পানির এক্সিকিউটিভ ভাইস-প্রেসিডেন্ট পল্লব ভৌমিক। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হয়রানিমূলক বদলি, বিধি বহির্ভূতভাবে ঢালাওভাবে নিয়োগ পদোন্নতি দিয়েছেন।

জানা যায়, সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এখতিয়ার বহির্ভূত সব কাজই করেছেন। কোম্পানির বিনিয়োগ পোর্টফোলিও হতে লাফার্জ-হোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের ২৫ লাখ ৫০ হাজার ১৪৪টি শেয়ার কেনাদামের চেয়ে ১২ দশমিক ৬৯ টাকা কমদামে বিক্রি করেছেন। এতে ডেল্টা লাইফেরে ক্ষতি হয়েছে ৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা। লাফার্জ-হোলসিমের প্রতিটি শেয়ারের ক্রয়মূল্য ছিল ৬৩ টাকা।   

এসব অভিযোগের বিষয়ে কথা বলার জন্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লার মোবাইল ফোনে কল করা হলেও তিনি ধরেননি।

এদিকে চারমাসের জন্য নিয়োগ পাওয়া সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে ১০ জুন নিয়োগ পেয়েছেন সাবেক যুগ্ম-সচিব মো. রফিকুল ইসলাম। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তিনিই ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৯ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০২১
এসই/এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa