ঢাকা, রবিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৮, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ সফর ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

সাতক্ষীরায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, মৎস্য খাতেই ক্ষতি ৫৩ কোটি 

শেখ তানজির আহমেদ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৯ ঘণ্টা, জুলাই ৩০, ২০২১
সাতক্ষীরায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, মৎস্য খাতেই ক্ষতি ৫৩ কোটি  সাতক্ষীরায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

সাতক্ষীরা: টানা ভারী বর্ষণে সাতক্ষীরায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে ভেসে গেছে ১৯ হাজার ৫৪৯টি মৎস্য ঘের। তলিয়ে গেছে ১৭০০ হেক্টর আমন বীজতলা।

পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন জেলার হাজারো পরিবার। রাস্তা-ঘাট পানিতে ডুবে চলাচলে মারাত্মক ভোগান্তির শিকার হচ্ছে মানুষজন।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাত পর্যন্ত টানা বর্ষণে জেলাজুড়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, টানা বর্ষণে জেলার তালা, কলারোয়া, আশাশুনি, দেবহাটা, কালিগঞ্জ, শ্যামনগর ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন হাজারো পরিবার।

সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির যুগ্ম সদস্য সচিব আলীনুর খান বাবুল বাংলানিউজকে বলেন, পানি নিষ্কাশনের যথাযথ ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সাতক্ষীরা পৌরসভাসহ জেলার সর্বত্র ভয়াবহ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। অনেক এলাকায় রোদে পানি শুকানো ছাড়া পানি কমার কোনো উপায়ও নেই। সাতক্ষীরা পৌরসভা এলাকাসহ সর্বত্র পানি নিষ্কাশনের খালগুলো অবৈধ দখলদাররা নেট পাটা দিয়ে আটকে রাখায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ঘরবাড়িতে পানি ওঠায় মানুষজন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

সাতক্ষীরা জেলা মৎস্য অফিসার মশিউর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, টানা বৃষ্টিতে জেলার ১২ হাজার ৬৫ হেক্টর আয়তনের মোট ১৯ হাজার ৫৪৯টি মৎস্য ঘের পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে মৎস্য খাতে প্রায় ৫৩ কোটি ৪৯ হাজার টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, ভারী বর্ষণে তলিয়ে গেছে জেলার ১৭০০ হেক্টর আমন বীজতলা। অন্য ফসলেও ক্ষতি হয়েছে। তবে আর বৃষ্টি আর না হলে ক্ষয়-ক্ষতি থেকে কিছুটা রক্ষা পাওয়া সম্ভব হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৫ ঘণ্টা, জুলাই ৩০, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa