ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

জমে উঠেছে আন্তর্জাতিক উড বিল্ডকন ও ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২২
জমে উঠেছে আন্তর্জাতিক উড বিল্ডকন ও ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো

ঢাকা: জমে উঠেছে বিশ্বের সর্বাধুনিক নির্মাণ অবকাঠামো এবং কাঠ ও আসবাবপত্র এবং ইলেক্ট্রিক্যাল সংশ্লিষ্ট শিল্পের নতুন উদ্ভাবন, প্রযুক্তি ও পণ্যের তিনদিনের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার (আইসিসিবি) ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

ষষ্ঠ বারের মতো ‘বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০২২’ মেলার আয়োজন করেছে আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস (প্রা.) লি. এবং ফিউচারেক্স ট্রেড ফেয়ার অ্যান্ড ইভেন্টস (প্রা.) লি.।

মূল এক্সপোতে বাংলাদেশ উড-২০২২; বাংলাদেশ বিল্ডকন-২০২২ এবং ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো-২০২২ এই তিনটি বিভাগে প্রদর্শনী চলছে। এতে বাংলাদেশসহ মোট ১০টি দেশের প্রায় ২০০টি প্রতিষ্ঠানের দুই হাজারেরও বেশি পণ্য স্থান পেয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভারতভিত্তিক কোম্পানি শ্রী পরিজাত মেশিনারিজের সত্ত্বাধিকারী সুরজিৎ শেটি বাংলানিউজকে বলেন, আমরা মূলত কংক্রিট ব্লক মেশিন উৎপাদন করি। এখানে বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) একটু কম সাড়া পেলেও আজ (২৫ নভেম্বর) দারুণ সাড়া পাচ্ছি। দিনভর দর্শনার্থীরা এসেছেন, তারা জানতে চেয়েছেন আমাদের পণ্য সম্পর্কে।

মেলায় স্টল দিয়েছে বিআরবি কেবলস। জানতে চাইলে কোম্পানিটির প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ার ওলিউর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, আমরা মূলত কেবল, ফ্যান, সুপার এনামেল কপার ওয়ার, অপটিক্যাল ফাইবার পণ্য এখানে নিয়ে এসেছি। খুব ভাল সাড়া পাচ্ছি। বিশেষ করে আমাদের কেবল খুবই ভাল রেসপন্স পাচ্ছে। এক্সট্রা হাই-ভোল্টেজ ক্যাবল, ইউএসবি কেবল নিয়ে মানুষ সবচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছে।

ওয়েনার ব্রাণ্ডের স্টলে কথা হয় প্রতিষ্ঠানটির জোনাল সেলস ম্যানেজার আশিকুর রহমানের সঙ্গে। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, মূলত আমরা সুইচ, সকেট, সার্কিট ব্রেকার, এইচডিবি ব্রেকার এই টাইপের পণ্যের প্রদর্শনী করছি। কাঁচামালগুলো বাইরে থেকে নিয়ে এসে প্রোডাকশন করি। এরপর সেগুলো ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করি। আশা করছি এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে আমাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসার বাড়বে।

আয়োজক সংশ্লিষ্টরা জানান, বাংলাদেশের নির্মাণ এবং আসবাব শিল্পকে আরও আধুনিকীকরণ এবং এর উৎপাদন বৃদ্ধি ও মানোন্নয়নে সক্ষম করতে আমাদের এই আয়োজন। সেই সঙ্গে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিকে আমাদের স্থানীয় শিল্পের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এ প্রদর্শনীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অংশ নিয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশে বর্তমানে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বিশ্বমানের পণ্য তৈরি হচ্ছে যা প্রদর্শনীতে বিশেষভাবে তুলে ধরা হবে।  

আয়োজকরা আরও জানান, ইভেন্টের মূল উদ্দেশ্য হল বাংলাদেশের আসবাবপত্র, নির্মাণ এবং বৈদ্যুতিক শিল্পকে বিকল্প সরবরাহকারী খুঁজে বের করা, খরচ অপটিমাইজ করা এবং নতুন সমাধান খুঁজে বের করা।

এর আগে বৃহস্পতিবার এ মেলা উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনদিনের এই প্রদর্শনী শেষ হবে শনিবার (২৬ নভেম্বর)। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৬ ঘন্টা, ২৫ নভেম্বর, ২০২২
এমকে/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa