ঢাকা, বুধবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭ শাবান ১৪৪৫

শিক্ষা

সরকারিকরণের দাবিতে সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০২৩
সরকারিকরণের দাবিতে সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৯ সালে সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজকে সরকারি ঘোষণা করলেও কলেজ কর্তৃপক্ষের একটি অংশ নানা অজুহাতে সরকারিকরণের কাজে বাধা সৃষ্টি করছে। ফলে কলেজটির সরকারিকরণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

 

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর বেইলি রোডে সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজের সামনে সীমানা প্রাচীর সংলগ্ন ফুটপাতে কলেজের সরকারিকরণের দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এ অভিযোগ করেন।  

মানববন্ধনের সভাপতি ও সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজের শিক্ষার্থী সাথী আক্তার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারী শিক্ষার অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখার জন্য ২০১৯ সালে আমাদের কলেজটিকে সরকারি ঘোষণা করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক পরিদর্শন শেষে সব কাগজপত্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। গত বছরের ৮ নভেম্বর মন্ত্রণালয় সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজের সরকারিকরণ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ডিড অব গিফট হস্তান্তরের জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষকে জরুরি ভিত্তিতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ আজ পর্যন্ত এটি হস্তান্তর করেননি। বরং নানা অযুহাতে হস্তান্তর প্রক্রিয়া ব্যাহত করে কলেজটিকে সরকারিকরণের কাজে বাধা সৃষ্টি করেছে! 

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, কলেজের শিক্ষার্থীরা ২৫ টাকা বেতনে পড়ার কথা জেনে ভর্তি হয়েছে। অথচ এখন মাসে এক হাজার ৩০০ টাকা বেতন দিতে হচ্ছে যা তাদের পরিবারের জন্য ভীষণ চাপের ও হতাশার।  

অভিভাবকদের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা যখন ২০১৯ সালে তাদের সন্তানদের ভর্তি করায় তখন বলা হয়েছিল এই কলেজের সরকারিকরণ হবে এবং বেতন হবে ২৫ টাকা। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, আজ পর্যন্ত এটির সরকারিকরণ হয়নি। এখানে একটি শুভঙ্করের ফাঁকি চলছে।  

এসময় মানববন্ধনে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অতি দ্রুত কলেজের সরকারিকরণ প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের দাবি জানান।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০২৩
ইএসএস/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।