ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শিক্ষা

জেএসসি: রাজশাহীতে পাসের হার ৯৪.১০ শতাংশ, জিপিএ-৫ ১৬৪৭৮

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
জেএসসি: রাজশাহীতে পাসের হার ৯৪.১০ শতাংশ, জিপিএ-৫ ১৬৪৭৮

রাজশাহী: রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় এ বছর পাসের হার ৯৪ দশমিক ১০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ হাজার ৪৭৮ শিক্ষার্থী।

এ বোর্ডে গতবার পাসের হার ছিল ৯৪ দশমিক ৫৮ শতাংশ। এ হিসেবে গতবারের চেয়ে এবার পাসের হার শূন্য দশমিক ৪৭ শতাংশ কমেছে।

এছাড়া রাজশাহী বোর্ডে জিপিএ-৫ প্রাপ্তি ও পাসের হারের দিক থেকে এবার ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা ভালো করেছে।

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ফলাফল ঘোষণা করেন- রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর দেবাশীষ রঞ্জন রায়।

তিনি বলেন, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড থেকে এবার জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল দুই লাখ ৫৮ হাজার ১৮৬ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে এক লাখ ২৫ হাজার ৭১৫ জন ছাত্র ও এক লাখ ৩২ হাজার ৪৭১ জন ছাত্রী ছিল। এ আসরে গতবছর অংশ নিয়েছিল দুই লাখ ৪৬ হাজার ৯৯৩ জন শিক্ষার্থী।

এ বোর্ডে পাস শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুই লাখ ৪২ হাজার ৯৬৪। এর মধ্যে এক লাখ ১৭ হাজার ছাত্র ও এক লাখ ২৫ হাজার জন ছাত্রী রয়েছে। ছাত্র পাসের হার ৯৩ দশমিক ৩০ শতাংশ এবং ছাত্রী পাসের হার ৯৪ দশমিক ৮৭ শতাংশ। মোট জিপিএর মধ্যে সাত হাজার ২৭৮টি পেয়েছে ছাত্র। আর ৯ হাজার ২০০ জন ছাত্রী পেয়েছে জিপিএ-৫।

প্রফেসর দেবাশীষ রঞ্জন রায় বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রতি বাড়তি যত্ন নেওয়ায় তাদের মধ্যে অঙ্ক ও ইংরেজি নিয়ে ধীরে ধীরে ভীতি কাটছে। এ জন্য বিগত বছরগুলোর তুলনায় ধীরে ধীরে ফলাফল ভালো হচ্ছে। যদিও রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে গতবারের তুলনায় এবার পাসের হার কম। গতবার পাসের হার ছিল ৯৪ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী জেএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করায় এবার পাসের হারের তুলনায় জিপিএ-৫ বেড়েছে। গতবারের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৪ হাজার ৬৩৮ জন। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ হাজার ৪৭৮ জন। এ সময় বিগত বছরগুলোর ফলাফলের পরিসংখ্যানও তুলে ধরেন বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক।

তিনি আরও বলেন, এবারের জেএসসি পরীক্ষায় স্কুলের সংখ্যা ছিল দুই হাজার ৯৮৬টি। ২৫৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে জেএসসি পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। এ বছর একজন শিক্ষার্থীও পাস করতে পারেনি এমন স্কুলের সংখ্যা দুইটি।

ওই দুই স্কুলকে এত খারাপ ফলাফলের জন্য শিগগির কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
এসএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa