ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

শিক্ষা

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শাবিপ্রবিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

শাবিপ্রবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৩১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শাবিপ্রবিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

শাবিপ্রবি (সিলেট): উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেছেন  শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাত পৌনে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বরে মোমবাতি প্রচলন করেন শিক্ষার্থীরা।

এসময় ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে, উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে কেন আন্দোলন শুরু করেছেন তা একটি ডকুমেন্টারির মাধ্যমে তুলে ধরেন শিক্ষার্থীরা। ডকুমেন্টারিতে দেখা যায়,শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ নির্বিচারে লাঠিচার্জ, সাউন্ড গ্রেনেড এবং রাবার বুলেট ছুড়ছেন। তাই শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণগুলো মিডিয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দেওয়ার আহ্বান জানান তারা।

এদিকে, শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী রাজ বলেন, আমরা আমাদের সহপাঠীদের শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে এখনই অনলাইনে আলোচনায় বসতে চাই অথবা শিক্ষামন্ত্রী কোনো প্রতিনিধি দল পাঠালে তাদের সঙ্গে। আমরা আর বিলম্ব করতে চাই না। পাশাপাশি শিক্ষকদের তাদের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করার জন্য আহ্বান জানান রাজ।

তিনি বলেন, এই আন্দোলন শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের এখানে অন্য কেউ ইন্ধন দিচ্ছে না। তাছাড়া আমাদের দাবিকে পুরো বাংলাদেশের মানুষের দাবি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই অবিলম্বে আমরা এ ভিসির পদত্যাগ চাই। আমাদের আন্দোলনকে অনেকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্য ব্যবহার করার চেষ্টা করছে।

এসময় অনশনরত শিক্ষার্থীদের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানিয়ে নওরিন বলেন, আমাদের ১৬ জন অনশনরত শিক্ষার্থী মেডিক্যালে ভর্তি আছেন। তাদের অবস্থা খুবই শোচনীয়। তাদের কয়দিনে যে অবস্থা হয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে কয়েক মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।  

তিনি বলেন, অনশনরত অনেক শিক্ষার্থীর অভিভাবক বলেছেন, আমরা আমাদের ছেলে-মেয়েদের এই শিক্ষা দেইনি যে তারা অন্যায়ের কাছে মাথানত করবেন।

এছাড়া শনিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে গোলচত্বরে কাপন পরে মৌন মিছিল করেন শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে জড়ো হয়। পরে রাত সাড়ে ৭টা এক সংবাদ সম্মেলনে গণঅনশনের ঘোষণা দেন।

জানা যায়, বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৩টা থেকে অনশন কর্মসূচি শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এতে ২৩ শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৬ জনে অসুস্থ হয়ে মেডিক্যালে ভর্তি হয়েছেন। কয়েকজন অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে ডাক্তাররা নিশ্চিত করেন।

>>> অনশন ভেঙে আলোচনায় বসার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

বাংলাদেশ সময়: ১০২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa