ঢাকা, শনিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

সিরাজগঞ্জের ৩টি আসনের বাছাই শেষ, সব স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২৩
সিরাজগঞ্জের ৩টি আসনের বাছাই শেষ, সব স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের তিনটি আসনের মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে সব স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। এছাড়া দলীয় তিন প্রার্থীর মনোনয়নপত্রও বাতিল হয়েছে।

 

রোববার (৩ ডিসেম্বর) জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের শহীদ শামসুদ্দিন সম্মেলন কক্ষে সিরাজগঞ্জ-১ (সদরের ৫ ইউনিয়ন ও কাজিপুর), সিরাজগঞ্জ-২ (সদরের ৫ ইউনিয়ন ও কামারখন্দ) এবং সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসনের মনোনয়নপত্র বাছাই করা হয়।  

সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. শহিদুল ইসলাম জানান, বাছাই শেষে সিরাজগঞ্জ-১ আসনে দুজন, সিরাজগঞ্জ-২ আসনে একজন ও সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে সাতজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।  

যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে, তারা হলেন- সিরাজগঞ্জ-১ আসনে জাকের পার্টির মো. রেজাউল করিম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মোস্তফা তালুকদার, সিরাজগঞ্জ-২ আসনে তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী সোহেল রানা ও সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে শরিফুল আলম খন্দকার (স্বতন্ত্র), সাখাওয়াত হোসেন সুইট (স্বতন্ত্র), আব্দুল হালিম খান দুলাল (স্বতন্ত্র) ও স্বপন কুমার রায় (স্বতন্ত্র), নুরুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), মোজাফফর হোসেন (স্বতন্ত্র) ও মুক্তিজোটের প্রার্থী নুরুল ইসলাম প্রামাণিক।  

মনোনয়নপত্র বাতিলের তালিকার স্বতন্ত্র পাঁচ প্রার্থী আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা।  

এদিকে মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ দাবি করে নির্বাচন কমিশনে আপিল করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রার্থীরা।  

স্বতন্ত্র প্রার্থী কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন সুইট অভিযোগ করে বলেন, বেছে বেছে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মনোনয়নপত্রই বাতিল করা হয়েছে। ভুল হলে দু-একজনের হবে। কিন্তু সবারই একই ধরনের ভুল দেখিয়ে বাতিল করা হয়েছে। এটা অবৈধ।  

রায়গঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার রায় বলেন, আমি ৪ হাজার ২০০ ভোটারের স্বাক্ষর জমা দিয়েছি। কিন্তু ৫২৮ জন ভোটারের স্বাক্ষর কম রয়েছে বলে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। আমি আপিল করব।  

অপর প্রার্থী রায়গঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল হালিম খান দুলাল বলেন, নিয়মাবলীর কোথাও ১% স্বাক্ষরে ভোটার নম্বর দেওয়ার কথা বলা হয়নি। অথচ সেই অজুহাতে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।  

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান জানান, যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে, তারা ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২৩
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।