ঢাকা, বুধবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন

ময়মনসিংহে আলীগ ৫, বিদ্রোহী ২, বিএনপি ২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৫
ময়মনসিংহে আলীগ ৫, বিদ্রোহী ২, বিএনপি ২

ময়মনসিংহ: প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে ময়মনসিংহের ৯ পৌরসভার মধ্যে পাঁচটিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

আর দু’টি করে পৌরসভায় মেয়র পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছন বিএনপি ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা।



জেলার নান্দাইল পৌরসভায় আওয়ামী লীগের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া (নৌকা) ৯ হাজার ২৯৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং অফিসার শাহ নূর আলম জানান, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির এএফএম আজিজুল ইসলাম পিকুল (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৬ হাজার ৩২৬ ভোট।

তবে ত্রিশাল পৌরসভায় বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এ বি এম আনিসুজ্জামান।

রিটার্নিং অফিসার জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, আনিসুজ্জামান পেয়েছেন ৭ হাজার ২৪৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির আমিনুল ইসলাম আমিন পেয়েছেন (ধানের শীষ) ৫ হাজার ৭৫৯ ভোট। আর আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম জুয়েল সরকার (নৌকা) পেয়েছেন ৩ হাজার ৭৭১ ভোট।

ফুলবাড়িয়ায় জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া (নৌকা)। ৭হাজার ৭৯৫ ভোট পেয়ে বিএনপির গোলাম ফারুকের থেকে এগিয়ে আছেন তিনি।

ধানের শীষ প্রতীকে গোলাম ফারুক ভোট পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৬৮ ভোট। আর বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী চান মাহমুদ (জগ) ৪ হাজার ৯৮ ভোট পেয়েছেন বলে জানান রিটার্নিং অফিসার বনানী বিশ্বাস।

ভালুকায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. মেজবাহ উদ্দিন কাইয়ুম (নৌকা) এগিয়ে আছেন। ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে একটি ভোট কেন্দ্র স্থগিত রয়েছে।

৮টি ভোট কেন্দ্রে তিনি পেয়েছেন ৯ হাজার ৯১ ভোট। আর তার নিকটতম বিএনপির হাতেম খান ধানের শীষে  পেয়েছেন ৪ হাজার ৩২১ ভোট পেয়েছেন বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং অফিসার কামরুল আহসান তালুকদার।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং অফিসার রাজিব কুমার সরকার জানান, এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব (নৌকা) পেয়েছেন ৬ হাজার ৬৩৬ ভোট। আর বিএনপির ফিরোজ আহমেদ বুলু (ধানের শীষ) ১হাজার ৪৮২ ভোট পেয়েছেন।

তবে  ৭হাজার ২১১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুস সাত্তার (নারিকেল গাছ)।  

গফরগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এস এম ইকবাল হোসেন সুমন (নৌকা) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১২ হাজার ৭১৪ ভোট।

রিটার্নিং অফিসার সিদ্ধার্থ শংকর কুন্ডু বলেন, এ পৌরসভায় বিএনপির শাহ আব্দুল্লাহ আল মামুন (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৫৮৯ ভোট।

তবে ফুলপুরে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির প্রার্থী আমিনুল হক (ধানের শীষ)।   তিনি পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৩৭ ভোট।

আওয়ামী লীগের শশধর সেন (নৌকা) ৩হাজার ৮৯২ ভোট পেয়েছেন বলে জানান রিটার্নিং অফিসার সুব্রত পাল।

গৌরীপুরে বেসরকারিভাবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম রফিক (নৌকা) নির্বাচিত হয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও রিটার্নিং অফিসার দূররে শাহওয়াজ বলেন, রফিকুল ইসলাম পেয়েছেন ৭ হাজার ১১৯ ভোট। দলের বিদ্রোহী প্রার্থী শফিকুল ইসলাম হবি (নারিকেল গাছ) ৪ হাজার ১৪৮ ভোট পান। বিএনপির প্রার্থী সুজিত কুমার দাস (ধানের শীষ) পেয়েছেন ২ হাজার ৭২৬ ভোট।

আর মুক্তাগাছা পৌরসভায় বিএনপি প্রার্থী শহীদুল ইসলাম শহীদ (ধানের শীষ) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

তিনি পেয়েছেন ৯ হাজার ২৪৫ ভোট। আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুল হাই আকন্দ (নৌকা) পেয়েছেন ৩ হাজার ৯১৯ ভোট।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. আলীমুজ্জামান জানান, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বাপ্পী ঘোষ (নারিকেল গাছ) ৫ হাজার ৭৭ ভোট পেয়েছেন। আর জাতীয় পার্টির আতাউর রহমান লেলিন (লাঙ্গল) পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৯০ ভোট।

বাংলাদেশ সময় ২২১৮ ঘণ্টা ডিসেম্বর ৩০, ২০১৫
এএমকে/টিআই/আরএইচএস/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।