ঢাকা, শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিনোদন

আমার সবচেয়ে জনপ্রিয় গান ‘চলো নিরালায়’: জনি হক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
আমার সবচেয়ে জনপ্রিয় গান ‘চলো নিরালায়’: জনি হক জনি হক

ঢাকা: ‘প্রেমে হাসিয়া ভাসিয়া/উতলা হাওয়ায়/চলো নিরালায়, চলো নিরালায়’– সবার মুখে মুখে এখন এসব লাইন। রায়হান রাফী পরিচালিত ‘পরাণ’ ব্লকবাস্টার হিট হওয়ার পেছনে অন্যতম উপকরণ হিসেবে কাজ করেছে ‘চলো নিরালায়’ গানটির সাফল্য।

এটি চলতি বছরের সবচেয়ে জনপ্রিয় গানের তালিকায় শীর্ষে। ইউটিউবে এর ভিউ এখন পর্যন্ত ১ কোটি ১১ লাখ।

সারাদেশে সাড়া ফেলে দেওয়া ‘চলো নিরালায়’ গানটি লিখেছেন জনি হক। সংগীতাঙ্গনে এখন এই গীতিকবির প্রশংসার ফুলঝুরি। এমন অভাবনীয় সাড়া পেয়ে আনন্দিত তিনি।  

তার কথায়, ‘শ্রোতারা গানটিকে দারুণভাবে গ্রহণ করেছেন। তারা নিজেরাই গানটি ছড়িয়ে দিয়েছেন। এছাড়া দেশের গুণী শিল্পীরা গানটি খুব পছন্দ করেছেন। এসব বিষয় উপভোগ করছি। আমার গান লেখার ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম এতোটা সাড়া পেয়েছি। আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে জনপ্রিয় গান এটাই। তাই অনুভূতিটা পুরোপুরি অন্যরকম। আমি সবার কাছে কৃতজ্ঞ। ’

‘চলো নিরালায়’ গান লেখার গল্প জানতে চাইলে জনি হক বাংলানিউজকে বলেন, ‘তরুণ সুরকার ও সংগীত পরিচালক নাভেদ পারভেজের সঙ্গে নিয়মিত কাজ করি। ২০১৯ সালের একদিন তিনি একটি সুর পাঠিয়ে বললেন, রায়হান রাফীর সিনেমার জন্য গানটি লিখতে হবে। সাধু ভাষায় ব্যতিক্রম লিরিক দরকার। গানটি যদি নির্মাতার পছন্দ হয় তাহলে পাস, তা না হলে বাদ! চ্যালেঞ্জটা নিলাম। এক বসাতে ৩০ মিনিটের মধ্যে লিরিক পাঠালাম। গানটি তৈরির পর একবার শুনেই রায়হান রাফীর পছন্দ হলো। আমারও প্রথমবার গানটি শুনে মনে হচ্ছিল সবশ্রেণির শ্রোতাদের ভালো লাগতে পারে। তবে এতো বিপুল সাড়া পাবো কখনো ভাবিনি। ’

গীতিকবি জনি হক মনে করেন, ‘‘সিনেমার সাফল্যের পেছনে গান বেশ গুরুপূর্ণ। কারণ সিনেমার কাছাকাছি দর্শককে টেনে আনতে গানের বিরাট ভূমিকা থাকে। বিশেষ করে উপমহাদেশের সিনেমায় গান যতো হিট সিনেমাও ততো হিট। ‘চলো নিরালায়’ আরেকবার সেটি প্রমাণ করেছে। ’’

‘পরাণ’ সিনেমার দুই তারকা শরিফুল রাজ ও বিদ্যা সিনহা মিমের দারুণ রসায়ন দেখা গেছে ‘চলো নিরালায়’ গানে। নাভেদ পারভেজের সুর ও সংগীতে এটি গেয়েছেন অয়ন চাকলাদার ও আতিয়া আনিসা। এবারই প্রথম একসঙ্গে মৌলিক গানে দ্বৈত কণ্ঠ দিলেন তারা। এটি অয়নের প্রথম প্লেব্যাক। তবে সিনেমার জন্য আতিয়া আনিসার আগে আরও ছয়টি গান গেয়েছেন।

গত ২৭ জুন ইউটিউবে লাইভ টেক চ্যানেলে প্রকাশিত হয় ‘চলো নিরালায়’। দুই মাস ১৫ দিনে কোটির মাইলফলক অতিক্রম করেছে এটি। সাধারণ শ্রোতাদের পাশাপাশি সংগীতাঙ্গন ও চলচ্চিত্রাঙ্গনের শিল্পী-কুশলীরা এই গানের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। ওপার বাংলার কয়েকজন শ্রোতা ইউটিউবে গানটির ইতিবাচক রিভিউ দিয়েছেন।

সিনেমায় এর আগে বেশ কয়েকটি গান লিখেছেন জনি হক। এগুলো হলো মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘তারকাঁটা’ সিনেমার টাইটেল ট্র্যাক, ‘সম্রাট’ সিনেমার টাইটেল ট্র্যাক এবং ‘যদি একদিন’ সিনেমার ‘চুপকথা’ ও ‘মন’, রফিক শিকদারের ‘ভোলা তো যায় না তারে’ সিনেমার ‘যদি মন পাখা মেলে’, রয়েল খানের ‘গেম রিটার্নস’ সিনেমার ‘মনের মঞ্জিল’ এবং ‘গেম গোয়িং অন’।

মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের কয়েকটি একক ও ধারাবাহিক নাটক এবং ওয়েব সিরিজের গান লিখেছেন জনি হক। এ তালিকায় উল্লেখযোগ্য ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস রিলোডেড’ ধারাবাহিকের ‘কখনো আলো কখনো আঁধার’, ‘হিট’, ‘দোস্ত দুশমন’, ‘পোস্ট গ্র্যাজুয়েট’ ও ‘নয় ছয়’ ধারাবাহিকের টাইটেল ট্র্যাক, ওয়েব সিরিজ ‘কুয়াশা’র ‘কিছু মুখ চেনা চেনা লাগে’, ‘ফ্রেন্ডস’র ‘বন্ধু’, একক নাটক ‘কাজল’র ‘মামনি’, ‘সিকিউরিটি গার্ড’র ‘ভাই আমার দুনিয়া’, ‘রোমিও জুলিয়েট’র ‘তোকেই ভালোবাসি’, ‘শিশির বিন্দু ২’র ‘তুমি থাকো যতদূরে’, ‘প্রেমেরই রঙে রাঙানো’, ‘আই অ্যাম অনেস্ট’, ‘চিরকুমার সংঘ (২০২২)’ ও ‘মরণের পরে’র টাইটেল ট্র্যাক।

জনি হকের লেখা জনপ্রিয় গানের মধ্যে আরও রয়েছে শাহনাজ রহমতউল্লাহর ‘সুখ পাখি’, সুবীর নন্দীর ‘কলমের কালি’, বিপ্লবের ‘মোবাইলটা বন্ধ কেনো’ ও ‘নিমন্ত্রণ’, ইমরানের ‘তোকে ভাবছি’, কণা ও ইমরানের ‘কথা দাও’, আরফিন রুমির ‘পাখি’, আরফিন রুমি ও কর্নিয়ার ‘বুকের মাঝে বাংলাদেশ’, বাপ্পা মজুমদারের ‘তোমার অভিধান’, প্রত্যয় খানের ‘স্বপ্ন নিয়ে’, শহিদ ও জুলির ‘স্বপ্ন’, প্রিয়াঙ্কা গোপের ‘হাওয়ার মাঝে’, তিশমার ‘প্রেম তুমি’, লুৎফর হাসান ও তাহমিনা মতিনের ‘প্রতিদিন গোলাপ’ প্রভৃতি।

এছাড়া বিটিভির ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’, বেসরকারি টিভি চ্যানেলের রম্য অনুষ্ঠান এবং বিজ্ঞাপনচিত্রের জন্যও গান লিখেছেন জনি হক।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa