ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

পরিমিত মাত্রায় খেতে হয় ‘বিলম্বি ফল’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০১৯
পরিমিত মাত্রায় খেতে হয় ‘বিলম্বি ফল’ গাছের শরীরজুড়ে ধরেছে বিলম্বি ফল। ছবি : ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন

মৌলভীবাজার: গাছের সারা শরীরজুড়ে এই ফলের প্রকাশ। সবুজাভ বর্ণে লম্বাকার এই ফলগুলো টক। তবে তুলনামূলকভাবে তার উপকারিতা এবং অপকারিতা দু’টোই রয়েছে। বন্যপ্রাণীদের প্রিয় খাবার এটি। কেউ কেউ এ ফলকে ‘বিলিম্বি’ নামেও উল্লেখ করে থাকেন। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর এবং উদ্ভিদ গবেষক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন এ প্রসঙ্গে বাংলানিউজকে বলেন, বিলম্বির ইংরেজি নাম Bilimbi এবং বৈজ্ঞানিক নাম Averrhoa bilimbi । এরা Averrhoaceae বা কামরাঙা পরিবারের উদ্ভিদ।

এটি ভিটামিন-প্রোটিন সমৃদ্ধ ফল। গাঢ় লাল ফুলের ছোট প্রজাতির গাছ বিলম্বি।  

গাছের শরীরজুড়ে ধরেছে বিলম্বি ফল।  ছবি : ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিনতিনি আরও বলেন, এটি টক জাতীয় ফল। ডাল এবং মাছের সঙ্গে অল্প পরিমাণে লম্বালম্বি কেটে রেঁধে খাওয়া যায়। এগুলো থাইল্যান্ড-মালয়েশিয়ার ফল। সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা এই জোনগুলোতে সম্ভবত বেশি পরিমাণে হয়। আমি ফেনী কিংবা উত্তরবঙ্গে দেখিনি। তবে এই ফলটি দেশের অন্যান্য অঞ্চলগুলোতে আস্তে আস্তে ছড়াচ্ছে।  

গুণাগুণ সম্পর্কে এ গবেষক বলেন, এই ফলটির ঔষধি গুণাগুণও রয়েছে। বিলম্বি ফল আবার বন্যপ্রাণীদেরও প্রিয় খাবার। বিশেষ করে টিয়াপাখিদের প্রিয় খাবার এটি। কাঠবিড়ালিরাও এই ফল খায়। তাছাড়া হরিণদের প্রিয় খাবার টক জাতীয় ফল। তাই এই ফলটি হরিণরা খুব পছন্দ করে। এছাড়াও আমলকি, আমড়া, জলপাই, হরিতকি, বহেড়া, কামরাঙা, অর বরই, জামরুল এসব ফলগুলো আমাদের বনাঞ্চলের হরিণদের প্রিয় থাবার।  

‘কাণ্ডজুড়ে একেবারে গোড়া থেকে মাথা পর্যন্ত গাছের পুরো শরীরে ফুল আসে। তারপর ফল হয়। ফুল কোনোটা মিস হয় না, সবগুলো ফুলই ফলে রূপান্তরিত হয়। গাছভরে থোকা থোকা ঝুলে থাকে। দেখতে ভীষণ লাগে। সারাবছরই কিছু না কিছু ফল দেখা যায়, তবে শীত মৌসুমেই তাদের ফুল-ফল দেওয়ার যথার্থ সময়। ’ 

তবে এই বিলম্বি ফলটি বেশি পরিমাণে কখনোই খাওয়া যাবে না। কারণ এটিতে ‘ক্যালশিয়ার অগজালেট’ থাকে। যা মানবদেহের কিডনিকে বিকল করে দিতে পারে। এটা অবশ্যই ডোজ মেনটেইন করে বা পরিমিত মাত্রায় খেতে হবে বলে জানান উদ্ভিদ গবেষক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন।  

বাংলাদেশ সময়: ১০১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৮ 
বিবিবি/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।