ঢাকা, শনিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৮ মে ২০২২, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

পুলিশের সহায়তায় মুক্তি পেল ৭০০ শালিক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২২
পুলিশের সহায়তায় মুক্তি পেল ৭০০ শালিক আটকে রাখা শালিক। ছবি: বাংলানিউজ

বাগেরহাট: বাগেরহাটের মোল্লাহাটে পুলিশের সহায়তায় ৭ শতাধিক বন্দী শালিক পাখিকে অবমুক্ত করা হয়েছে। রোববার (২ জানুয়ারি)  বিকেলে পাখিগুলোকে মোল্লাহাট থানা ও রাজপাট এলাকায় প্রকৃতিতে অবমুক্ত করে মোল্লাহাট থানা পুলিশ।

 

এর আগে শনিবার (জানুয়ারি) রাত ও রোববার (০২ জানুয়ারি) ভোরে মোল্লাহাট উপজেলার গাওলা ইউনিয়নের রাজপাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুটি বাড়ি থেকে ৭ শতাধিক শালিক পাখি উদ্ধার করে থানা পুলিশ। তবে এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

শিকার করা শত শত শালিক আটকে পাখির খামার গড়ে তুলেছিলেন এক ব্যক্তি। বিভিন্ন কৌশলে ধরা শালিকগুলোকে খুলনা ও আশপাশের এলাকায় বিক্রি করত চোরা শিকারিরা।

স্থানীয়রা জানান, এই অঞ্চলে শালিক পাখি তেমন কেউ খায় না। তবে বিভিন্ন হোটেলে কোয়েল বলে এই শালিকের মাংস খাওয়ানো হয়। এছাড়া সৌখিনভাবে বাসা-বাড়িতে শালিক পালনের প্রচলন রয়েছে।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোমেন দাশ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি, গাওলা ইউনিয়নের একটি গ্রামে বিভিন্ন ধরনের পাখি আটকে রাখা হয়েছে। খবর পেয়ে গভীর রাতে আমরা অভিযানে যাই। সে সময় রাজপাট এলাকার জনৈক কাকা মিয়ার বাড়ির থেকে ৫ শতাধিক এবং পার্শ্ববর্তী অন্য একটি বাড়ি থেকে আরও ২ শতাধিক শালিক পাখি উদ্ধার করা হয়।

ওসি আরও বলেন, উদ্ধার হওয়া শালিক পাখিগুলো খুলনাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করা হত। শালিকগুলো স্থানীয় বিভিন্ন বিল-বাওড় থেকে শিকার করা হয়। অভিযান টের পেয়ে শালিকগুলো আটকে রাখা ব্যক্তি পালিয়ে যায়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa