ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ফিচার

মৃত্যুর পরও বাচ্চাদের আগলে ছিল মা কুকুরটি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৬, ২০২১
মৃত্যুর পরও বাচ্চাদের আগলে ছিল মা কুকুরটি

রাজশাহী: হেমন্তের শিশির ভেজা সকাল। কুয়াশার চাদরে শহরের রাস্তাগুলো আবৃত।

প্রতিনিয়ত তাপমাত্রা কমার সঙ্গে সঙ্গে শীতের তীব্রতা বাড়ছেই। শীতের প্রভাবে প্রাণীদের জীবনযাপন অনেকটা স্থবির হয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) কুয়াশা ঘেরা সকালে রাজশাহী মহানগরীর তেরখাদিয়া এলাকায় বিভাগীয় স্টেডিয়ামের গেটের সামনের রাস্তায় একটি কুকুরকে দেখা যায়। রাস্তা দিয়ে গাড়ি, মানুষ চলাফেরার সময় সরিয়ে দিতে চাইলেও এক বিন্দু নড়ছিল না।

উল্টো ঘেউ ঘেউ করছে শুধু। কারণ খুব সকালে কুকুরটির দুই বাচ্চাকে চাপা দিয়ে চলে গেছে এক অটোরিকশা। ঘটনাস্থলেই দুই ছোট্ট বাচ্চা মারা যায় তার পর থেকে কুকুরটি আর কোথাও যাচ্ছিল না।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান সকাল ৮টার সময় অটোরিকশার চাপায় দুই কুকুরের বাচ্চা মারা যায়। তারপর থেকে মা কুকুরটি সেখানে অবস্থান করপ। কয়েকবার বাচ্চা দুটিসহ মা কুকুরটিকে সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে কিন্তু সেটি সম্ভব হয়নি। পরে তা সরিয়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় দোকানি দুলাল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে বলেন, নিজ সন্তানের প্রতি প্রাণীদেরও যে ভালোবাসা আছে এটি তার প্রমাণ। কারণ বাচ্চা দুটি মারা যাওয়ার পর থেকে এক সেকেন্ডের জন্যও মা কুকুরটি কোথাও যায়নি। এটি দেখে মনে হচ্ছে রাস্তায় চলাফেরার সময় আমাদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত। এভাবে যেন কোনো প্রাণীর বাচ্চা সড়কে মৃত্যু না হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২০৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৬, ২০২১
এসএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa