ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

ফুটবল

পর্তুগালকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে দ. কোরিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২২
পর্তুগালকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে দ. কোরিয়া

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে পর্তুগাল। তৃতীয় ম্যাচে অবশ্য তেমন ছন্দে ছিলো না।

শুরুতে তারা এগিয়ে গেলেও বিশ মিনিট পরে সমতায় ফেরে দক্ষিণ কোরিয়া। দ্বিতীয়ার্ধে গিয়ে চমক দেখায় দলটি। নির্ধারিত ৯০ মিনিট পর যোগ করা সময়ে গোল করে তলানিতে থেকে উঠে যায় দুইয়ে; নিশ্চিত করে শেষ ষোলো।  

শুক্রবার রাতে কাতার বিশ্বকাপের ‘এইচ’ গ্রুপে এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে পতুর্গালকে ২-১ ব্যবধানে হারায় দক্ষিণ কোরিয়া। শুরুতেই রিকার্দো হোর্তা পর্তুগিজদের এগিয়ে নেওয়ার পর দক্ষিণ কোরিয়াকে সমতায় ফেরান কিম ইয়ং-গোয়ন। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে গোল করে দলকে দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠান হোয়াং হি-চান।

পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা দক্ষিণ কোরিয়া ৪ পয়েন্ট নিয়েই শেষ ষোলোতে কোয়ালিফাই করে। ঘানাকে হারিয়ে সমান পয়েন্ট করে উরুগুয়েও। গোল ব্যবধানও একই দুই দলের। তবে গোল দেওয়ার হিসেবে উরুগুয়ে থেকে ২ গোলে এগিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া। যে কারণে পরবর্তী পর্ব নিশ্চিত হয়েছে তাদের। তবে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থেকেই দ্বিতীয় রাউন্ডে যাচ্ছে পর্তুগাল।

মাঠে নেমেই গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি পর্তুগালকে। মাত্র পাঁচ মিনিটের মাথায় তাদের এগিয়ে নেন হোর্তা। দিয়েগো দালোতের পাস বক্স থেকে সুন্দর শটে জাল খুঁজে নেন তরুণ এই ফরোয়ার্ড। সপ্তদশ মিনিটে দক্ষিণ কোরিয়াকে সমতায় ফেরান কিম জিন-সু। তবে অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল হয়।

দশ মিনিট পর ঠিকই সমতায় ফেরে কোরিয়া। কর্ণার থেকে উড়ে আসা বল রোনালদোর মাথায় লেগে ফাঁকায় চলে আসে। সামনে পাওয়া বল দারুণ এক ভলিতে জালে পাঠান কিম ইয়ং-গোয়ন। দুই মিনিট পরেই দারুণ এক সুযোগ পান রোনালদো। গোলরক্ষককে একা পেয়েও ঠিকঠাক শট নিতে পারেননি তিনি। ঠেকিয়ে দেন কিম সেয়ুং-গিয়ু।  

বিরতির পর খেলতে নেমে আগের মতোই খেলতে থাকে পর্তুগাল। অপরদিকে সুযোগ পেলেই আক্রমণ করে বসে দক্ষিণ কোরিয়া। ৭০তম মিনিটে দারুণ এক সুযোগ পায় তারা। কিম জিন-সুর বাড়ানো বল থেকে শট নেন সন। দারুণ দক্ষতায় সেটি ফিরিয়ে দেন কানসেলো।  

এগিয়ে যেতে মরিয়া দক্ষিণ কোরিয়ার ম্যাচের শেষটা হয় স্বপ্নের মতোই। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটেই গোল করে নিশ্চিত করে শেষ ষোলো। প্রতিআক্রমণ থেকে বল টেনে নিয়ে হোয়াং হি-চানকে বল বাড়ান সন হিউং মিন। বল পেয়ে দারুণ শটে জাল খুঁজে নেন উলভারহ্যাম্পটনের এই ফরোয়ার্ড।  

বাংলাদেশ সময়: ১১১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০২২
আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa