ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

ফুটবল

শামসুন্নাহারের হ্যাটট্রিক, ভুটানকে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৩
শামসুন্নাহারের হ্যাটট্রিক, ভুটানকে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

নারীদের অনূর্ধ্ব-২০ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠতে হলে ড্র করলেও চলতো। এমন সহজ সমীকরণের ম্যাচে ভুটানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ।

দলের বড় জয়ের রাতে হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছেন অধিনায়ক শামসুন্নাহার।

আজ কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ভুটানকে ৫-০ গোলে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। ফাইনালে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যদের প্রতিপক্ষ নেপাল। এ নিয়ে তিনটি সাফ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে নেপালকে।

এর আগে গত বছর সিনিয়র নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে অ-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালের বিপক্ষে ফাইনালে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল মেয়েদের।  

আজ কমলাপুরের টার্ফে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে বাংলাদেশ। ৭ মিনিটের মধ্যে তিনবার অফসাইডের ফাঁদে পড়েন বাংলাদেশের ফরোয়ার্ডরা। সেই ফাঁদ ভেঙে ৮ মিনিটে ভুটান গোলরক্ষককে একা পেয়েও তালগোল পাকিয়ে বল জালে ঠেলতে পারেননি আকলিমা খাতুন। ১৭ মিনিটে শামসুন্নাহার সুযোগ নষ্ট করেন ভুটানের গোলরক্ষকের গায়ে বল মেরে।  

সুযোগ নষ্ট করলেও ২২ মিনিটে বাংলাদেশের প্রথম গোলের মূল উৎস শামসুন্নাহারই। প্রায় মাঝমাঠ থেকে ক্ষিপ্র গতিতে ভুটানের দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বক্সে থাকা আকলিমার দিকে বল পাঠান বাংলাদেশ অধিনায়ক। মাটি কামড়ানো শটে বল জালে পাঠান আকলিমা।  

পরের মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। বক্সে শামসুন্নাহার ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ২৫ মিনিটে স্পট কিক নেন শাহেদা আক্তার রিপা। তার শট বাঁ পাশের বার ঘেষে চলে যায়।

তবে আক্ষেপকে বড় হতে দেননি শামসুন্নাহার। ২৯ মিনিটে উন্নতি খাতুনের কর্নার থেকে হেডে বাংলাদেশকে এগিয়ে দেন লাল-সবুজ অধিনায়ক। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় বাংলাদেশ। এরই ধারাবাহিকতায় বক্সের ভেতর থেকে শট নেন আকলিমা। তার শট খুঁজে পায়নি জাল। তবে ৫৩ মিনিটে স্বাগতিকদের তৃতীয় গোলের আনন্দে ভাসান অধিনায়ক। মাঝমাঠ থেকে রিপার বাড়ানো বলে নিপুণ দক্ষতায় গায়ে লেগে থাকা ভুটানি ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোল করেন শামসুন্নাহার। সামনে এগিয়ে এসেছিলেন গোলরক্ষক, তাকে এগিয়ে আসতে দেখে আড়াআড়ি শটে বলকে জালে পাঠান বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক।  

৫৬ মিনিটে হ্যাটট্রিকের সুযোগ নিজেই নষ্ট করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ইতি খাতুনের বাড়ানো বল থেকে ভুটান গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে চিপ করেন শামসুন্নাহার। গতি থাকায় এবার আর জাল খুঁজে পাননি তিনি।  

এরপর দুই মিনিটের ব্যবধানে ভুটানের জালে দুইবার বল ঠেলেন আকলিমা খাতুন ও শামসুন্নাহার। ৬০ মিনিটে আইরিন খাতুনের পাস ধরে একক দক্ষতায় নিজের দ্বিতীয় গোল করেন আকলিমা। পরের মিনিটে প্রায় একইরকম আক্রমণ থেকে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন শামসুন্নাহার।

দিনের আরেক ম্যাচে ভারতকে ৩-১ গোলে গুঁড়িয়ে দিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে নেপাল। প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ১২-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে প্রতিপক্ষদের কঠিন বার্তাই দিয়েছিল ভারতের মেয়েরা। পরের ম্যাচে বাংলাদেশের সঙ্গে ড্র করে তারা। নেপালের বিপক্ষে হারের ফলে তাদের ফাইনালে ওঠা নির্ভর করছিল বাংলাদেশ-ভুটান ম্যাচের ওপর। বাংলাদেশ হারলেই ফাইনালে পৌঁছাতো তারা। কিন্তু স্বাগতিকরা জিতে যাওয়ায় আসর থেকে ছিটকে পড়লো ভারত।

বাংলাদেশ সময়: ২১২১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০২৩
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।