ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৩ মে ২০২৪, ১৪ জিলকদ ১৪৪৫

ফুটবল

'গার্দিওলার অধীনে খেলা যৌনতার চেয়েও উপভোগ্য'

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১০, ২০১৮
'গার্দিওলার অধীনে খেলা যৌনতার চেয়েও উপভোগ্য' বার্সার স্বর্ণযুগের দুই সারথি-পেপ গার্দিওলা ও দানি আলভেজ/ছবি: সংগৃহীত

পেপ গার্দিওলার অধীনে ক্যারিয়ারের বর্ণিল সময় কাটিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানি আলভেজ। বার্সেলোনায় তার অধীনে চ্যাম্পিয়নস লিগ, লা লিগাসহ সম্ভাব্য সব শিরোপা জেতার স্বাদ পেয়েছেন তিনি। গার্দিওলার অধীনে খেলা দারুণ উপভোগও করেছেন এই তারকা। এতোটাই উপভোগ করেছেন যে, তার কাছে গার্দিওলার অধীনে খেলা ‘যৌন সংসর্গের চেয়েও বেশি উপভোগ্য’।

ইতালির জুভেন্টাসের হয়ে এক মৌসুম কাটিয়ে বর্তমানে পিএসজির হয়ে খেলছেন আলভেজ। এর আগে কাতালান জায়ান্টদের হয়ে খেলার সময় গার্দিওলার সর্বজয়ী দলের অন্যতম সেরা সদস্য ছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান।

বার্সেলোনার নতুন চলচ্চিত্র ‘টেক দ্য বল, পাস দ্য বল’-এ নিজের সাবেক গুরু পেপ গার্দিওলাকে প্রশংসায় ভাসাতে গিয়ে আলভেজ বলেন, ‘তিনি সেরা কোচ। তার অধীনে খেলা যৌন সম্পর্ক স্থাপনের চেয়ে বেশি আনন্দের। ’

এদিকে সাবেক শিষ্য যে মন্তব্য করেছেন তাকে নিয়ে তার সঙ্গে একমত হতে পারেননি গার্দিওলা। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে আসন্ন ডার্বি উপলক্ষে এই বিষয়ে কথা বলেছেন সিটি কোচ। হাসতে হাসতে তার জবাব, ‘আমি অবশ্য যৌন সংসর্গকেই এগিয়ে রাখব। ’

আরেক সাবেক শিষ্য সাবেক সুইডিশ তারকা জলাতান ইব্রাহিমোভিচকেও এই সুযোগে খোঁচা দিতে ভুলেননি গার্দিওলা। ইব্রা প্রায়ই সুযোগ পেলেই নিজের বার্সা অধ্যায়ের কোচ গার্দিওলাকে দোষারোপ করেন। এবার খোঁচানোর সুযোগ হাতছাড়া করলেন না গার্দিওলাও।

‘আমি অনেক বড় তালিকা করতে পারি, যারা আমাকে অনেক ভালোবাসে এবং দানি (আলভেজ) একজন। ’

‘কিন্তু অন্যদিকে সুইডেন ও অন্য অনেক জায়গায়, তারা আমাকে ততোটা পছন্দ করেনা। তারা নিয়মিত খেলে না, তবে তারা সমর্থক নয়। ’

‘আমরা তাদের মন জয় করার চেষ্টা করি-কখনো হয়, কখনো হয়না। ’

তবে প্রিয় শিষ্য আলভেজ কিন্তু শুধু তার অধীনে খেলাকে ‘যৌন সংসর্গের চেয়ে বেশি আনন্দের’ এটুকু বলেই থামেননি। প্রশংসার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়ে আলভেজ বলেন, ‘তিনি গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে একজন জিনিয়াস। তিনি জানেন মাঠে কিভাবে খেলোয়াড়দের সেরাটা বের করে আনতে হয়। ’

‘অনেক সময়, তিনি ম্যানেজার হিসেবেই আমাদের ম্যাচ জিতিয়ে দিয়েছেন। আমাদের শুধু তার দেখানো পথে হাটলেই চলতো। ’

শেষ পর্যন্ত এই ৩৫ বছর বয়সী তারকা কেন কখনো নিজের প্রিয় কোচের অধীনে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেননি সেটাও খোলাসা করেছেন। ‘ম্যানচেস্টার সিটিতে যাওয়া একপ্রকার নিশ্চিত ছিল। কিন্তু পরিবারের সিদ্ধান্তে ফিরে আসতে হয়েছে। পেপ জানেন সেকথা। ’

‘আমি তার সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি ভালো করেই জানেন আমার উদ্দেশ্য। পেপ এবং তার স্টাফদের সঙ্গে কাজ করা আমার কাছে সবসময়ই আনন্দের। ’

তবে ক্যারিয়ার যেহেতু শেষ হয়ে যায়নি, তাই ভবিষ্যতে ইংলিশ লিগে তাকে দেখাও যেতে পারে বলে জানালেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১০, ২০১৮
এমএইচএম/এমএমএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।