ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফুটবল

লাল কার্ড-পেনাল্টিতে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৩, ২০২১
লাল কার্ড-পেনাল্টিতে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

সেই ২০০৫ সালের পর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলা হয়নি বাংলাদেশের। ১৬ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটানোর সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল লাল-সবুজের জার্সিধারীরা।

কিন্তু গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকোর লাল কার্ড আর শেষদিকে পেনাল্টি গোলে সর্বনাশ হলো জামাল ভূঁইয়াদের।

বুধবার সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের রাউন্ড রবিন লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে নেপালের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে বাংলাদেশ। ফাইনালে উঠতে হলে এই ম্যাচ জেতার কোনো বিকল্প ছিল না বাংলাদেশের সামনে। অন্যদিকে নেপালের ড্র করলেই চলতো।  শেষ পর্যন্ত চার ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে ছিটকে গেল অস্কার ব্রুসনের দল। আর ৭ পয়েন্ট নিয়ে প্রথমবারের মতো সাফের ফাইনালে উঠল নেপাল।  

মালদ্বীপের রাজধানী মালের রাশমি ধান্দু স্টেডিয়ামে সুমন রেজার গোলে প্রথমার্ধ এগিয়ে যায় জামাল ভূঁইয়ারা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের শেষ ভাগে দলের মূল গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো দলকে বাঁচাতে রেড কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে ১০ জনের দলে পরিণত হয় বাংলাদেশ।  এরপর ৮৮তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে পাওয়া গোলে ড্র তুলে নেয় নেপাল।

গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে চারটি পরিবর্তন এনে সেরা একাদশ সাজান ভারপ্রাপ্ত কোচ অস্কার ব্রুসন। কার্ডের খাড়ায় ছিটকে গেছেন ইয়াসিন আরফাত। এছাড়া রহমত মিয়া, সোহেল রানা, মতিন মিয়ার বদলে টুটুল হোসেন বাদশা, বিশ্বনাথ ঘোষ, রাকিব হোসেন, সুমন রেজাকে একাদশে রাখা হয়।

শুরুর দিকে নেপালের দখলে বলের নিয়ন্ত্রণ থাকলেও দ্রুতই গুছিয়ে ওঠে বাংলাদেশ। গোলও পেয়ে যায় শুরুতেই। অষ্টম মিনিটে রাকিব হোসেন বাঁদিক থেকে বল নিয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণে ঢুকে পড়লে প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার গৌতম শ্রেষ্ঠ তাকে পেছন থেকে পা বাড়িয়ে ফেলে দিলে রেফারি ফ্রি-কিকের বাঁশি বাজান। সীমানার কাছ থেকে ফ্রি-কিক নেন জামাল ভূঁইয়া। বাংলাদেশ অধিনায়কের কিকে বল নেপালের এক ডিফেন্ডারের মাথায় লেগে পোস্টের সামনে উড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে ছয় গজ বক্সে থাকা সুমন রেজা দারুণ হেডে বল জালে জড়িয়ে দেন।

২৩তম মিনিটে সুযোগ পায় নেপালে। কিন্তু অঞ্জন বিস্তার ফ্রি-কিক লাফিয়ে ফিস্ট করে ফেরান বাংলাদেশের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। দুই মিনিট পর সাদউদ্দিন অরক্ষিত অবস্থায় থেকেও তাড়াহুড়ো করে শট নেন। বল দূরের পোস্টের অনেক বাইরে দিয়ে যায়।  

এগিয়ে যাওয়ার পর নিজেদের রক্ষণে নজর দেয় বাংলাদেশ। এই সুযোগে বেশ কয়েকবার আক্রমণ করে নেপাল। তবে বাংলাদেশকে রক্ষা করেন তপু বর্মণ ও গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। বিশেষ করে আনিসুর রহমান যেন নেপালের সামনে দেয়াল হয়ে দাঁড়ান। ফলে প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিরতির পর আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে খেলা এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৭৯ তম মিনিটে দলকে বিপদ থেকে বাঁচাতে গিয়ে লাল কার্ড দেখেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। এরপর ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে নেপালকে বিতর্কিত এক পেনাল্টি উপহার দেন রেফারি। সেই পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনেন নেপালের অঞ্জন বিস্তা। ম্যাচের বাকি সময় আর গোল করতে না পারায় ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে ১০ জনের বাংলাদেশ।  

দিনের অপর ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভারত ও স্বাগতিক মালদ্বীপ। সেই ম্যাচের পরই জানা যাবে ফাইনালে নেপালের প্রতিপক্ষ কারা। ১৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে সাফের ফাইনাল।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৩, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa