ঢাকা, শুক্রবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ফুটবল

চমক থাকছে কাবরেরার দলে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২১, ২০২২
চমক থাকছে কাবরেরার দলে

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল সেপ্টেম্বরে দু’টি ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলবে কম্বোডিয়া ও নেপালের বিপক্ষে। আগামী ২৬ আগস্ট প্রীতি ম্যাচের জন্য ফুটবল দলের আবাসিক ক্যাম্প শুরু হবে উত্তরায়।

দলের প্রধান কোচ হ্যাভিয়ের কাবরেরা ছুটি থেকে ঢাকায় ফিরে নতুন মিশন শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ক্যাম্পের জন্য খেলোয়াড়ের তালিকাটা নিজের ভাবনার মধ্যেই রেখেছেন হাভিয়ের কাবরেরা। আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও প্রকাশ করেননি। তবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোচ ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন, ক্যাম্পের দলে চমক থাকবে যথেষ্টই।

আজ (২১ আগস্ট) রবিবার বাফুফে ভবনে কম্বোডিয়া ও নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দুটির বিষয়ে কথা বলেছেন কাবরেরা। তিনি বলেছেন, ‘এটা ভালো বিষয় যে নতুন খেলোয়াড়েরা ভিন্ন কিছু করে দেখাচ্ছে। প্রতিটা পজিশনে আমাদের কেমন খেলোয়াড় দরকার সেই বিষয়ে এরই মধ্যে ভালো ধারণা হয়ে গেছে। বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের প্রফাইল পেয়ে গেছি। আগেই বলেছি, দলে এবার চমক থাকছে। এমন কিছু, যা আপনারা আশা করছেন না। নিজ নিজ ক্ষেত্রে তারা সেরা পারফরমার। ’

ঠিকঠাক দল গুছিয়ে নেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় মেলায় খুশি কাবরেরা। তিনি বলেন, ‘আমরা ২৬ অগাস্ট থেকে শুরু করতে যাচ্ছি। আমরা সৌভাগ্যবান যে, এবার আমরা যথেষ্ট সময় পাচ্ছি। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সময় এটি। ঢাকাতে আমরা তিন সপ্তাহের মতো অনুশীলন করতে পারব। ’

নেপালের অবস্থান সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে উঁচুতে হওয়ায় সেখানে খেলতে গেলে খেলোয়াড়দের অনেক সময়ই দমের সমস্যায় পড়তে হয়। অনেকেই হাঁপিয়ে ওঠেন দ্রুত। বিষয়গুলো বাংলাদেশ কোচকে ভাবনায় ফেলেছে।

‘দুটি ম্যাচই আমরা খেলব বাইরে। (দেশ ছাড়ার পর) দুই ম্যাচে আসা-যাওয়ার কারণে সেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারব না। কাঠমাণ্ডুতে উচ্চতার একটা ব্যাপার আছে। সেখানে খেলা সহজ নয়। কম্বোডিয়া ও নেপালের খেলার ধরনও আলাদা। যেমন ওরা বল কেড়ে নেওয়ার ব্যাপারে খুব বেশি আগ্রহী নয়। কিন্তু ওরা খুব সজাগ আর একবার বলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বসলে ওরা আপনাকে ঠিকই শাস্তি দেবে। ’

নেপালের বিপক্ষে খেলে সাফের অন্যান্য দেশের তুলনায় নিজেদের অবস্থান কোথায় সেটা দেখতে চান কাবরেরা। কম্বোডিয়ার উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে প্রায় তিন সপ্তাহের মতো ঢাকায় অনুশীলন করবে বাংলাদেশ দল।  

‘আমরা নেপালে গিয়ে খেলতে চাই, নেপালের সঙ্গে তুলনা করে দেখতে চাই সাফের দলগুলোর মধ্যে আমাদের অবস্থাটা কেমন। হ্যাঁ, এটা সত্যি কম্বোডিয়া আর নেপাল সম্পূর্ণ আলাদা দুই দল। তবে দুই ম্যাচের মধ্যে প্রস্তুতির জন্য সময় আছে। ’

‘কম্বোডিয়া বল পায়ে রেখে খেলতে পছন্দ করে। নিচ থেকে আক্রমণ গড়ে ৪-৩ -৩ ফর্মেশনে খেলে। নেপাল অনেক আগ্রাসী দল। ব্লকে অনেক স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে তারা। দুটি দলই ইন্টারেস্টিং। তবে আমরা আমাদের সেরাটা দিতে পারলে দুই দলকে হারানো কঠিন কিছু নয়। ’

বাংলাদেশ সময়: ২০০১ ঘণ্টা, আগস্ট ২১, ২০২২
এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa