ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ শাওয়াল ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

জামালপুরে কর্মবিরতি শেষে কাজে ফিরেছেন চিকিৎসকরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
জামালপুরে কর্মবিরতি শেষে কাজে ফিরেছেন চিকিৎসকরা

জামালপুর: টানা ৪ দিনের অব্যাহত কর্মবিরতির পর স্থানীয় প্রশাসনের আশ্বাসে কর্মবিরতি শেষ করে চিকিৎসা সেবায় ফিরেছেন কর্মরত চিকিৎসকরা।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুর পৌনে ২টার দিকে জামালপুর ২৫০ শয্যা হাসপতালের সহকারী পরিচালক ডা. মাহাফুজুর রহমান এ ঘোষণা দেন।

এর আগে, জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা সভা শেষে এ ঘোষণা দেন জামালপুর ২৫০ শয্যা হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মাহাফুজুর রহমান।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জামালপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী মোজাফফর হোসেন।

এছাড়া জামালপুর জেলা প্রশাসক এনামুল হক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী, জামালপুর পুলিশের এসপি দেলোয়ার হোসেন, জামালপুর পৌরসভার মেয়র মীর্জা সাখাওয়াতুল মনিসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

>>>জামালপুরের চিকিৎসকদের কর্মবিরতি অব্যাহত

প্রসঙ্গত, জামালপুর শহরের ইকবালপুর এলাকার গুরুতর অসুস্থ করিমন (৬৪) নামের এক নারী চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৫ ডিসেম্বর দুপুরে জামালপুর সদর হাসপাতালে মারা যান। চিকিৎসকদের অবহেলায় মৃত্যুর অভিযোগ তুলে রোগীর স্বজনরা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে হামলা ও আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। বহিরাগতদের হামলায় জরুরি বিভাগের চিকিৎসা কর্মকর্তা চিকিৎসক চিরঞ্জীব সরকারসহ চারজন ইন্টার্ন চিকিৎসক গুরুতর আহত হন। এর জের ধরে ওইদিন হাসপাতাল ক্যাম্পাসে বহিরাগত লোকজন ও ইন্টার্ন চিকিৎসদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় কয়েকজন ইন্টার্ন চিকিৎসক ছাড়াও সদরের ইউএইচএফপিও চিকিৎসক লুৎফর রহমান পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়ে গুরুতর আহত হন।

এ ঘটনায় জামালপুর সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক চিকিৎসক মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান বাদী হয়ে ২৬ ডিসেম্বর রাতে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় পাঁচজনের নামে এবং আরও অজ্ঞাত পরিচয়ের কয়েকজনকে আসামি করা হয়। তাদের মধ্যে শহিদুল ইসলাম (৪২) ও সাইদুর রহমান (৩৮) নামের দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।