ঢাকা, বুধবার, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমতি পেল বঙ্গভ্যাক্স

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১১ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০২২
মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমতি পেল বঙ্গভ্যাক্স

ঢাকা: দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের করোনা ভাইরাস প্রতিরোধী বঙ্গভ্যাক্স টিকা মানবদেহে পরীক্ষামূলক (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল) প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

রোববার (১৭ জুলাই) গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক (কোয়ালিটি অ্যান্ড রেগুলেটরি) ড. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আজকেই আমরা বঙ্গভ্যাক্স টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের অনুমতি পেয়েছি। কবে নাগাদ বঙ্গভ্যাক্স টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমরা পরে আপনাদের বিস্তারিত জানাবো।

গ্লোব বায়োটেক কর্তৃক উদ্ভাবিত বঙ্গভ্যাক্স টিকা প্রি-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে খরগোশ, ইঁদুর ও বানরে প্রয়োগে নিরাপদ ও কার্যকরী প্রমাণিত হওয়ায় এর তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ ২৩ নভেম্বর, ২০২১ মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের নৈতিক অনুমোদন দেয়।

এরপর বঙ্গভ্যাক্স মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের অনুমোদনের অপেক্ষায় ছিল গ্লোব বায়োটেক।

এদিকে গ্লোব বায়োটেক থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, এখন পর্যন্ত বিশ্বে অতি সংক্রমণশীল ওমিক্রন-ডেল্টাসহ করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন ভ্যারিয়েন্ট বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় সক্রিয় ছিল। আমরা প্রতিটি ভ্যারিয়েন্টের সিকোয়েন্স অ্যানালাইসিস করে আমাদের ভ্যাকসিনের সিকোয়েন্স মিলিয়ে দেখেছি প্রতিটি ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রেই বঙ্গভ্যাক্স কার্যকর, যার প্রমাণ মিলেছে বানরের পরীক্ষায়।

প্রাথমিক ফলাফলে আমাদের ভ্যাকসিনটি বানরের শরীরে নিরাপদ ও কার্যকর এন্টিবডি তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। এরপর আমরা ভ্যাকসিনেটেড বানরে করোনা ভাইরাসের ওমিক্রন-ডেল্টাসহ অন্যান্য ভ্যারিয়েন্ট প্রয়োগ করে চ্যালেঞ্জ স্টাডি করেছি। আমরা দেখতে পেয়েছি, আমাদের ভ্যাকসিনে বানরের শরীরে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে, সেই অ্যান্টিবডি সাত দিনের মধ্যেই করোনা ভাইরাসকে নিউট্রালাইজ করতে পেরেছে। এতে প্রমাণিত হয়, আমাদের ভ্যাকসিন অতি সংক্রমণশীল ওমিক্রন-ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টসহ সার্স-কোভ-২ এর যে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্ট রয়েছে সেগুলোকেও নিউট্রালাইজ করতে সক্ষম। চূড়ান্ত ফলাফলে আমাদের ভ্যাকসিন বানরে সম্পূর্ণ নিরাপদ ও শতভাগ কার্যকর।  

আমাদের ভ্যাকসিন ডেল্টার মতো অতি সংক্রমণশীল ও ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেও সমান কার্যকর। বানর আর মানুষের মধ্যে জিনগত বেশ মিল থাকায় এবং বানরের পরীক্ষায় ‘বঙ্গভ্যাক্স’ সম্পূর্ণ নিরাপদ ও শতভাগ কার্যকর প্রমাণিত হওয়ায়, আমরা খুবই আশাবাদী যে ‘বঙ্গভ্যাক্স’ মানবদেহেও অনুরূপভাবে কাজ করবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০২২, আপডেট: ১৭৩৩ ঘণ্টা
আরকেআর/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa