ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

কৃষি

কৃষকরা যেন উৎসাহ না হারান: রাষ্ট্রপতি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৭ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৬
কৃষকরা যেন উৎসাহ না হারান: রাষ্ট্রপতি ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘চালের দাম কম থাকলে আমরা সবাই খুশি থাকি। কিন্তু যারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে চাল উৎপাদন করেন, আমরা কি কখনো তাদের কথা ভেবে দেখি? অনেক সময় ধানের চাষ করে কৃষক উৎপাদন খরচ ওঠাতে পারছেন না।

তাই কৃষকরা যেন উৎসাহ না হারান, সে ব্যাপারে সকলকে বিশেষভাবে নজর দিতে হবে’।
 
সোমবার (২০ জুন) বিকেলে রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের মিলনায়তনে কৃষিবিদ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও কেআইবি কৃষিপদক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
 
কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে কৃষিতে অবদান রাখায় কৃষক, উদ্যেক্তা, গবেষকসহ সংশ্লিষ্টদের পদক প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি।
 
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, ‘কৃষি কেবল অর্থনীতির প্রাণশক্তি নয়, তা আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের শেকড়ও বটে। তাই আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে কৃষিখাতের অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে সকলকে নিরন্তর প্রয়াস চালাতে হবে’।
 
জলবায়ু পরিবর্তনে সৃষ্ট পরিস্থিতি দক্ষতার সঙ্গে মোকাবেলা করা বড় চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে প্রতিকূল জলবায়ু সহনশীল শস্যের বিভিন্ন জাত উদ্ভাবনের ওপর গুরুত্ব ‍দিতে হবে। এর পাশাপাশি কৃষি সহায়ক শিল্প প্রতিষ্ঠানসহ কৃষির বহুমুখী উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে’।
 
তিনি বলেন, ‘কৃষকরা যেন পরিবর্তিত পরিবেশে খাপ খাইয়ে চলতে পারেন, সেজন্য তাদের কৃষি প্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষ করে তুলতে হবে। বৈজ্ঞানিকরা যেকোনো উন্নত জাতের ফসল বা পদ্ধতি আবিস্কার করুন না, যে পর্যন্ত কৃষকরা এসব গ্রহণ করে বাস্তবায়িত না করবেন, সে পর্যন্ত এসবের তেমন কোনো মূল্য নেই’।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘কৃষিকে এগিয়ে নিতে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু অনেকেই তার ভুল ব্যাখ্যা করে সরকারকে পেছনে নিয়ে যাওয়ার ষড়যন্ত্র করেন’।
 
বক্তারা বলেন, ‘কৃষির উৎপাদন, চাষ ব্যবস্থা, নতুন নতুন উদ্ভাবনে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূ্র্ণতা অর্জন করেছি আমরা। কিন্তু প্রবৃদ্ধির দিক দিয়ে কৃষি পিছিয়ে যাচ্ছে। এর কারণ অনুসন্ধান করে বের করতে হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষকদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে’।
 
কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের সভাপতি সংসদ সদস্য কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী মো. ছায়েদুল হক, অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি কৃষিবিদ ড. মো. আবদুর রাজ্জাক, কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য কৃষিবিদ আবদুল মান্নান, কেটালিস্ট হেড অব মনিটরিং অ্যান্ড রেজাল্ট মেজারমেন্ট ফরচুনেট ডিনার। স্বাগত বক্তব্য দেন কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের মহাসচিব কৃষিবিদ মোহাম্মদ মোবারক আলী।
 
অনুষ্ঠানে মোট সাতজনকে কৃষিপদক প্রদান করা হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮২৫ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৬
একে/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa