ঢাকা, রবিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

কৃষি

কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২, ২০১৭
কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে শীতের সবজি।

ঢাকা: গত এক মাস ধরেই সবজির বাজার চড়া। কেজি প্রতি অধিকাংশ সবজির দামই ছাড়িয়ে গিয়েছিলো ১শ’ টাকার ঘর।  ফলে দীর্ঘদিন ধরে সবজির বাজারে অস্বস্তি ছিলো ক্রেতাদের। তবে শীতের হাওয়া স্বস্তি নিয়ে এসেছে ক্রেতাদের জন্য। বাজারে কমতে শুরু করছে সবজির দাম। কেজিপ্রতি ১০ টাকা করে কমেছে অনেক সবজির দামই। সামনের দিনগুলোতে সবজির দাম আরো কমবে বলেও বিক্রেতারা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) রাজধানীর হাতিরপুল কাঁচাবাজার, পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজার ও পূর্ব রাজাবাজারের কাঁচাবাজার ঘুরে এসব তথ্য জানা যায়।
 
সর্বশেষ সবজির খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ২০০ টাকা থেকে ১২০ টাকায়, বেগুন ৭০ টাকা থেকে ৬০ টাকায়, পেঁপে ৩০ টাকা থেকে ২৫ টাকায়, ধনিয়াপাতা ২০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকায়, সিম ১৬০ টাকা থেকে ১৪০ টাকায়, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়, পটল ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায় নেমে এসেছে।

এছাড়া গত সপ্তাহের মতোই আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা করে, শসা ৫০ টাকা করে। কিন্তু কেজিপ্রতি ২০ টাকা দাম বেড়ে বরবটি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়।

সবজির দাম কমার কারণ হিসেবে বিক্রেতারা বলছেন, শীতের হাওয়া সবজির বাজারে লেগেছে। ফলে বাজারে প্রচুর সবজি আসছে, তাই দাম কমছে।

সামনে দিনগুলোতে দাম কমার আরও সম্ভাবনা আছে বলেও তারা জানান।

হাতিরপুল কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা রাহাত আলী বাংলানিউজকে বলেন, বন্যা ও বৃষ্টিপাতের ধাক্কা ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে সবজির বাজার। যোগানে এখন কোনো ঘাটতি নেই। ফলে দামও কমছে।

পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা জসিম বাংলানিউজকে বলেন, শীতে সবজির উৎপাদন বেশি হয় বলেই প্রতিবছরই এ সময় দাম কমে।

সবজির বাজার স্থিতিশীলতার দিকে এগোলেও অস্থিতিশীল রয়েছে পেঁয়াজ ও আদার বাজার। প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। আমদানি করা পেঁয়াজের কেজিপ্রতি দাম ৬০ টাকা। আদা বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ১৫০ টাকা দরে।

সব চালের দাম বাজারে মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে বলে বিক্রেতারা জানিয়েছেন। প্রতিকেজি নাজিরশাইল চাল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা করে। প্রতিকজি মিনিকেট ৬০ টাকা,  বিআর-২৮ কেজিপ্রতি ৫০-৫৫ টাকা এবং স্বর্ণা ও পারিজা কেজিপ্রতি ৪৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

অপরিবর্তিত রয়েছে আর সব নিত্য পণ্য ও মাছমাংসের  দাম।

সর্বশেষ খুচরা বাজার দর অনুযায়ী, দেশি রসুন ৮০ টাকা, আমদানি করা রসুন ৮৫ টাকা, চিনি ৫৫ টাকা, দেশি মসুর ডাল ১০০ টাকা, আমদানি করা ডাল ৬০ টাকা করে কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে।

মাছের সর্বশেষ বাজার দর প্রতিকেজি বড়, মাঝারি ও ছোট চিংড়ি যথাক্রমে  ৭৫০, ৭০০ ও ৬৫০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিকেজি রুই মাছ ২০০-৩০০ টাকা, কাতল মাছ ১৮০ টাকা, রূপচাঁদা ৭০০ টাকা, শিং মাছ ৩৮০ টাকা, পাঙ্গাশ মাছ ১২৫ টাকা, তেলাপিয়া ১৩০ টাকা করে করে বিক্রি হচ্ছে। বোয়াল বিকোচ্ছে ২৮০ টাকা কেজিতে। সিলভার কার্প এর কেজি ১৪০ টাকা।

মাংসের বাজার রয়েছে গত সপ্তাহের দরে। প্রতিকেজি গরুর মাংস ৪৮০-৫০০ টাকা, খাসির মাংস ৭০০- ৭৫০ টাকা ও ব্রয়লার মুরগী ১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া কর্ক মুরগী সাইজ অনুযায়ী ১৫০-২২০টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস।

বাংলাদেশ সময়: ১১১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২, ২০১৭
এমএসি/জেডএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa