ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কৃষি

মিষ্টি রসে মন ভোলাবে বারোমাসি ‘হলুদ তরমুজ’

শরীফ সুমন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০১৮
মিষ্টি রসে মন ভোলাবে বারোমাসি ‘হলুদ তরমুজ’ হলুদ তরমুজ, ছবি: বাংলানিউজ

গোদাগাড়ীর চৈতন্যপুর (রাজশাহী) থেকে ফিরে: গ্রীষ্মের রসালো ফল তরমুজ। তৃষ্ণা মেটাতে এর কোনো জুড়ি নেই। আছে অনেক স্বাস্থ্য গুণও।

তবে ফলটি যদি বারোমাসই পাওয়া যায়? আর তার ভেতরটা যদি লাল নাহয়ে হলুদ হয়? কী শুনতেই ভালো লাগছে, তাইনা? বিশ্বাস না হলেও এটাই সত্য।

মন ভালো করে দেওয়ার খবর হচ্ছে- রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের চৈতন্যপুর গ্রামে বারোমাসি তরমুজ চাষ হচ্ছে।

এছাড়া প্রচলিত লাল তরমুজের পাশাপাশি এখানে শুরু হয়েছে নতুন জাতের হলুদ রঙের তরমুজের চাষ। এ তরমুজের ভেতরেও সম্পূর্ণ হলুদ। তবে রঙ বদলালেও স্বাদ বদলায়নি।

বরং এ তরমুজ আরও মিষ্টি। আরও সুস্বাদু। যারা তরমুজ পছন্দ করেন তাদের কাছে নিঃসন্দেহে একটি ভালো খবর। বাণিজ্যিকভাবে এখানে বারোমাসি তরমুজ চাষ শুরু হয়েছে। গোদাগাড়ী উপজেলার আদিবাসী পল্লী হিসেবে পরিচিত চৈতন্যপুরের রঙিন তরমুজ এখন বছরজুড়েই মানুষদের মুখে স্বাদের ভিন্নতা ছড়াবে।

রাজশাহীর স্বপ্নবাজ তরুণ কৃষক মনিরুজ্জামান মনির তার মোট ১৭ বিঘা জমির মধ্যে তিন বিঘার ওপর ব্যতিক্রমী এ তরমুজের চাষ শুরু করেছেন। থাই পেয়ারা ও স্ট্রবেরিসহ বিভিন্ন জাতের নতুন নতুন ফসল চাষের নেশা চেপে বসেছে এ তরুণের ওপর। যেই ফসলই নতুন মনে হয় তাই চাষ শুরু করেন মনিরুজ্জামান।

জানতে চাইলে মনিরুজ্জামান বাংলানিউজকে জানান, সব সময় নতুন ফসল চাষে ঝুঁকি থাকে। এর পরও তিনি বরাবরই নতুনের পেছনেই ছোটেন। এতে কষ্ট বেশি থাকলেও যখন সফলতা আসে, তখন ভালো লাগার মাত্রাটাও থাকে অন্যরকম। সাত বছর ধরে চাষাবাদের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু এখন পর্যন্ত পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এ চেতনা থেকেই বরেন্দ্রের মাটিতে বারোমাসি এবং হলুদ রাঙা তরমুজের চাষ শুরু করেছেন।
তরুণ কৃষক মনিরুজ্জামান মনির।  ছবি: বাংলানিউজতিনি আরও জানান, তার বাড়ি রাজশাহী মহানগরীর মহিষাবাথান এলাকায়। তিনি একজন শৌখিন চাষি। নিজের কোনো আবাদি জমি নেই। জমি ইজারা নিয়ে আবাদ করে থাকেন। এর আগে টিস্যু কালচার পদ্ধতিতে বীজ আলু চাষ করেছেন। স্ট্রেবেরি চাষ করেছেন। অন্য জমিতে এখনও স্ট্রেবেরি, পেঁপে ও প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে গাছে পাকানো টমেটো চাষ করছেন তিনি।

আর স্পেশালভাবে চাষ করছেন বারোমাসি তরমুজ। এর মধ্যে হলুদ তরমুজটার আকর্ষণ বেশি। ক’দিন আগে এ তরমুজ কেটেছেন। বর্তমানে লাল তরমুজও পরিপক্ক হয়ে ওঠেছে। কয়েকদিনের মধ্যে তাও কাটবেন। এ তরমুজ ৭৫ দিনের ফসল। তাই বছরে তিন থেকে চারবার চাষ করা যায়।

বাজারে সাধারণত সবুজ কিংবা গাঢ় সবুজ বর্ণের তরমুজ দেখা যায়। কিন্তু এবার একেবারেই ভিন্ন রঙের তরমুজ চাষ হয়েছে। এটি প্রথম চাষ হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়। তার পর সিলেটে। সর্বশেষ রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে। বারোমাসি হলুদ জাতের ব্যতিক্রমী এ ফলের বীজ এসেছে তাইওয়ান থেকে। ঢাকার এগ্রি কনসার্ন কোম্পানি এ বীজ আমদানি করে। সেখান থেকে তরমুজের বীজগুলো এনেছেন। এ বীজ রোপন করে ভালো ফলনও পেয়েছেন। নতুন জাতের এ তরমুজের দামও সন্তোষজনক।

এক বিঘা জমিতে এ তরমুজ চাষ করতে প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়। আর বিক্রি করে পাওয়া যায় প্রায় দেড় লাখ টাকা। এক বিঘায় ৬৪-৬৫ মণ এ তরমুজের ফলন হয়। আর পাইকারি বাজারে মণপ্রতি বিক্রি হয় দুই থেকে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার টাকা পর্যন্ত।
তরমুজ ক্ষেত, ছবি: বাংলানিউজমাল্চিং পদ্ধতিতে এ তরমুজ চাষ করা হয়। বর্ষাকালীন সময়ে তরমুজ চাষ করতে মাচান তৈরি করতে হয়। আর শীতকাল বা অন্য সময়ে মাটিতেই তরমুজ চাষ করা যায়। প্রথমবার মাচা তৈরি করলে সেই মাচা এক বছর ব্যবহার করা যাবে। দ্বিতীয়বারের উৎপাদন খরচ কম হবে।

মাল্চিং সেটে একটি বিশেষ ধরনের পলিথিন ব্যবহার করা হয়েছে। এর এক দিকে কালো এক দিকে সিলভার রঙ রয়েছে। সিলভার রঙটা ওপরে থাকবে এবং কালোটা নিচে। এ সেটের গায়ে সূর্য কিরণ এসে তার ওপরে পড়ার পর আবার ফেরত পাঠাবে। এটি মাটি ভেতরে ঢুকে উত্তপ্ত করতে পারবে না। এটির কাজ হচ্ছে আমরা জমিতে যেই সার দেই তা নষ্ট হবে না, আগাছা তৈরি হবে না।

মনিরুজ্জামান বলেন, কৃষিক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য ২০০৬ সালে তিনি বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকও পেয়েছেন। নতুন ফসল চাষ করা তার নেশা৷ ঝুঁকি থাকলেও সব সময় চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করেন।

গোদাগাড়ী উপজেলার ঈশ্বরীপুর ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা অতনু সরকার বাংলানিউজকে বলেন, বাইরে থেকে এ তরমুজ দেখে বোঝার উপায় নেই যে এর ভেতরে হলুদ। তবে কাটলে তার রঙ বেরিয়ে আসবে।

খেতেও দারুণ মিষ্টি। মনিরুজ্জামানের জমিতে ফলনও ভালো হয়েছে। সারা বছরই বিশেষ এ জাতের তরমুজ চাষ করা যায়। তাই বাণিজ্যিকভাবে চাষের ব্যাপকতা সৃষ্টি হলে বারোমাসি তরমুজ কৃষকের জন্য লাভজনক হবে বলেও মন্তব্য করেন উপ-সহকারী এ কৃষি কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০১৮
এসএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa