ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

ইউনাইটেডের ৫ ফ্লাইট বাতিলে বিমানবন্দরে বিক্ষোভ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৪
ইউনাইটেডের ৫ ফ্লাইট বাতিলে বিমানবন্দরে বিক্ষোভ ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: বুধবার ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীন রুটের পাঁচটি ফ্লাইট বাতিলে ভোগান্তিতে পড়া যাত্রীরা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বহির্গমন টার্মিনালে বিক্ষোভ শুরু করেছেন।

সন্ধ্যার পর এ বিক্ষোভ শুরু হয় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত বিক্ষোভ চলছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইউনাইটেড বুধবার আন্তর্জাতিক রুটের কাতারের দোহাগামী একটি ও ওমানের মাস্কটগামী একটি ফ্লাইট বাতিল করে। একইসঙ্গে অভ্যন্তরীন রুটে চলাচলকারী তিনটি ফ্লাইটও বাতিল করে তারা। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ যাত্রীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউনাইটেডের এ সিদ্ধান্তে গন্তব্যে যেতে না পারায় যাত্রীরা ক্ষুব্ধ হয়ে সন্ধ্যার পর বিমানবন্দরের বহির্গমন টার্মিনালে বিক্ষোভ শুরু করেন।

এর আগে, বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় উত্তরায় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন জানানো হয়, বৃহস্পতিবার থেকে ইউনাইটেডের সব ফ্লাইট অপারেশন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। উড়োজাহাজের জ্বালানি ও ইনফ্লাইট খাবার না থাকাসহ নানা কারণে বৃহস্পতিবার থেকে আর কোনো ফ্লাইট পরিচালনা করা সম্ভব হবে না।

সংবাদ সম্মেলনে এয়ারলাইন্সের হেড অব মার্কেটিং আফতাব, ডিরেক্টর ফ্লাইট অপারেশন ক্যাপ্টেন ইলিয়াস, ক্যাপ্টেন ওয়াহিদ, ডিরেক্টর প্রশাসন উইং কমান্ডার (অব.) ফেরদৌস, ডিরেক্টর কাস্টমার সার্ভিস ফরহাদ, শাহাবসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চলমান পরিস্থিতি সামাল দিতে না পেরে এরই মধ্যে ইউনাইটেডের দুই ডিরেক্টর পদত্যাগ করেছেন।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরীরর পদত্যাগের জের ধরে এয়ারলাইন্সের চরম অব্যবস্থাপনা তৈরি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে ক্যাপ্টেন ইলিয়াস এয়ারলাইন্স পরিচালনা করতে অনতিবিলম্বে একজন দক্ষ ও যোগ্য ব্যক্তিকে সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার দাবি জানান।

ক্যাপ্টেন ইলিয়াস বলেন, কোম্পানি আইন অনুযায়ী দক্ষ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ পাওয়ার আশা করছি। এমনকি পদত্যাগী চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন তাসবিরকে ফিরিয়ে এনেও পরিস্থিতি সামলানো যেতে পারে।  
   
সোমবার নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পান মাহতাবুর রহমান। শাহীনুর আলম বুধবার নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করার কথা থাকলেও তিনি যোগ দেননি। এ কারণে এয়ারওয়েজের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সব কর্মীর মধ্যে আরো বেশি অনিশ্চয়তা তৈরি হয়।

সংবাদ সম্মেলন বলা হয়, নতুন চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাউকে না পাওয়ায় বিগত দুই দিন ধরে ফ্লাইট অপারেশন পরিচালনায় চরম বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। বুধবার ঢাকা-দোহা-মাস্কট, ঢাকা-কুয়ালালামপুর ফ্লাইট ছাড়াও চারটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল হয়।

ক্যাপ্টেন ইলিয়াস বলেন, ২২ সেপ্টেম্বরের ১৫ মিনিটের সভায় তিনি পদত্যাগ করেন। নতুন পর্ষদ শাহীনুর আলম নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচারক হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর বিগত দুই দিনে কেউই ম্যানেজমেন্ট পর্যায়ের কারো সঙ্গে যোগাযোগ করেননি। ফুয়েল নাই, ক্যাটারিং নাই। এছাড়াও অনেক খরচের বিষয়টিও জড়িত।

তিনি বলেন, ডিরেক্টর প্রশাসন উইং কমান্ডার (অব.) ফেরদৌসকে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। দায়িত্ব নেওয়ার ৪ ঘণ্টার মধ্যে তিনি পদত্যাগ করেন। ডিরেক্টর রেভিনিউ ও কোম্পানি সচিব গ্রুপ ক্যাপ্টেন (অব.) খোরশেদও পদত্যাগ করেন।

‘আমি নিজে মাস্কাটে ফ্লাইটে নিয়ে যাই আমি। নিয়মানুযায়ী ৮ জন ক্রুকে ওখানে রেখে আসার কথা থাকলেও চলমান সংকটের কারণে তাদেরকে পুনরায় ঢাকায় ফিরে নিয়ে আসতে বাধ্য হই। সবার মধ্যে চরম আতঙ্ক কাজ করছে। তেল নেই। নতুন ফ্লাইট চলার সুযোগ নেই। ’ যোগ করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৪

** বৃহস্পতিবার বন্ধ হচ্ছে ইউনাইটেডের সব ফ্লাইট

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।