ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

বিপদ বুঝেই সটকে পড়েছেন তাসবির

ইশতিয়াক হুসাইন, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২০১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৪
বিপদ বুঝেই সটকে পড়েছেন তাসবির

ঢাকা: সমূহ বিপদ আঁচ করতে পেরেই পদত্যাগ করে সটকে পড়েছেন ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তাসবিরুল ইসলাম চৌধুরী।

নানা অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

তার এসব অনিয়ম ও দুর্নীতির তদন্ত করছে খোদ দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অনিয়ম করে শেয়ারবাজার থেকে ৪১৫ কোটি টাকা তুলে নেওয়া, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এর কাছে প্রায় ১০০ কোটি টাকা পাওনা না দেওয়া, মালিকানা দ্বন্দ্বসহ নানা অভিযোগে এমনিতেই বিপদগ্রস্থ ছিলেন তাসবিরুল ইসলাম।    

শুধু তাই নয়, নিয়ম না মেনে যাত্রীদের জীবন ঝুঁকির মুখে ফেলে বিপজ্জনকভাবে ফ্লাইট পরিচালনার অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রথমবার শেয়ারবাজার থেকে ৪১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর সম্প্রতি নতুন করে আবার টাকা তোলার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু আগের অনিয়ম ও প্রতারণার কারণে স্টক একচেঞ্জ ও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) তার পুনরায় অর্থ তোলার পরিকল্পনায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মূলত শেয়ারবাজার থেকে আর টাকা তোলার সুযোগ হাতছাড়া হওয়াতেই তাসবির পদত্যাগ করে সটকে পড়েছেন। এই খাত থেকে তাসবির যে পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন আর নতুন করে কিছু করার সুযোগ নেই। এ কারণেই চতুর তাসবির নিজে থেকে সরে গিয়ে নিজেকেই রক্ষা করেছেন।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরেই এয়ারওয়েজের ১১টি উড়োজাহাজের ৫টি অচল ছিল। যখনই কোনো যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয় তখন একটি উড়োজাহাজের যন্ত্রাংশ খুলে আরেকটিতে লাগিয়ে জোড়াতালি দিয়ে চলতো ফ্লাইট।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দুটি এয়ারবাসের একটি সবসময়ই অচল থাকে। বর্তমানে পাঁচটি এমডি-৮৩ এর মধ্যে তিনটি এবং তিনটি এটিআর-৭২ উড়োজাহাজের একটি অচল হয়ে পড়ে রয়েছে। এর মধ্যে একটি এটিআর-৭২ দুই মাসের বেশি সময় ধরে পড়ে আছে। ইঞ্জিন না থাকায় এটি সচল করা যাচ্ছে না। আর কখনোই এক সঙ্গে দুটি এয়ারবাস-৩১০ উড়োজাহাজ সচল থাকে না।
 
বিমান চলাচল খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ইউনাইটেড এয়ার একদিকে রুট চালু করছে, অন্যদিকে তা বন্ধ করছে। এভাবেই চলছে এয়ারলাইন্সের রুট প্ল্যানিং। গত কিছুদিনের মধ্যে ইউনাইটেড এয়ার ঢাকা-সিঙ্গাপুর, ঢাকা-দুবাই ও ঢাকা-ব্যাংকক ফ্লাইট বন্ধ করে।  

অভিযোগ রয়েছে, মূলত ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ ১১টি উড়োজাহাজ দেখিয়ে শেয়ার ছেড়েছে। যে কারণে ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও তারা এসব উড়োজাহাজ বহর থেকে সরিয়ে ফেলতে পারছে না।  

এ বিষয়ে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের মুখপাত্র ও অ্যাসিসট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) কামরুল ইসলামকে সারাদিন একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল দিলেও তিনি ধরেননি।  

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরীর পদত্যাগের পর মঙ্গলবার এয়ারলাইন্সে অস্থিরতা তৈরি হয়।

এ অবস্থায় এয়ারলাইন্সের বৈমানিকেরা ক্যাপ্টেন তাসবিরের পদত্যাগের পরেও যাতে সবকিছু ঠিকমতো চলে, কর্মীদের বেতনভাতা পেতে যাতে কোনো সমস্যা না হয় তা নিয়ে প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে বৈমানিক ও কর্মীদের মধ্যে সভা হয়।

এদিকে মূলত সোমবার এয়ারওয়েজের বার্ষিক সাধারণ সভায় সদ্য পদত্যাগী ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসবিরুল আহমেদ চৌধুরী পরিচালকদের তোপের মুখে পড়েন। যে কারণে সোমবার সন্ধ্যার বার্ষিক সভা শেষ হতে মধ্যরাত লেগে যায়। ওই সভাতেই তার পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত হয়।  

এদিকে নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহতাবুর রহমান বুধবার নতুন দায়িত্বে যোগদান করছেন বলে এয়ারওয়েজ সূত্রে জানা গেছে।

** ইউনাইটেডের প্লেন কেনায় জালিয়াতির হোতা তাসবির

বাংলাদেশ সময়: ০২০২ ঘন্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।