ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

বাহরাইন

মানামা থেকে জাকারিয়া মন্ডল

বাহরাইনে সবজি বাজারের দখল নিতে পারে বাংলাদেশ

জাকারিয়া মন্ডল ও মোসাদ্দেক হোসেন সাইফুল | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৪
বাহরাইনে সবজি বাজারের দখল নিতে পারে বাংলাদেশ ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মানামা থেকে: আমদানি নির্ভর বাহরাইনের কাঁচাবাজারে বাংলাদেশি সবজির চাহিদা ব্যাপক। কিন্তু সরবরাহ কম থাকায় দাম বেশি।

তাই মধ্যপ্রাচ্যের সৌদি আরব, ইয়েমেন, লেবানন, ইরান, মিশর, সিরিয়া ও দুবাইয়ের সঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ভারত, পাকিস্তান, চীন, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন সমানে পাল্লা দিলেও সেই দৌড়ে বাংলাদেশ সবার শেষে।

বাজার ঘুরে অল্প পরিমাণে হলেও বাংলাদেশ থেকে আসা করল্লা, সিম, আলু, পটল, কদু, কচুর লতি, কাকরোল, পানি কচু আর ঝিংগা চোখে পড়লো। কিন্তু সবজি বাজারে বাংলাদেশের উপস্থিতি এতো কম যে মন ভরলো না।

বাহরাইনের মোট জনসংখ্যার ছয় ভাগের এক ভাগ যদি বাংলাদেশি হয় তাহলে এমন উপস্থিতিতে মন ভরার কথাও নয়।

এখানকার কোল্ড স্টোর মানে সবজি ও কাঁচামালসহ মুদির দোকান। সব দোকানে ইংরেজি আর আরবির পাশাপাশি বাংলায় লেখা সাইনবোর্ড। অনেক গুলোর নামই বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার নামে। বেশ বোঝা যায়, সংশ্লিষ্ট দোকান মালিক কোথা থেকে এসেছেন।

বাহরাইনের প্রায় সাড়ে চার হাজার বছরের পুরনো শহর মুহাররকে এমনই এক দোকান মালিক বাংলাদেশের বিমল ভৌমিক। ১৬ বছর ধরে সবজির ব্যবসা করছেন তিনি। প্রায় ১৩ লাখ টাকায় শুরু করেছিলেন দোকান। এখন দিনে প্রায় ২০ হাজার টাকা বিক্রি হয় তার দোকানে।

ক্ষোভের সঙ্গে জানালেন, বাংলাদেশি পণ্যের দাম বেশি। দাম একটু কম হলে বাংলাদেশি সবজির সঙ্গে কোনো দেশ টিকতেই পারতো না।
 
একই আওয়াজ বাজলো জেসমিন স্টোরের সুমন মোল্লার বক্তব্যেও। মানামার বৈশাখী স্টোরেও বাংলাদেশি সবচি চোখে পড়লো না তেমন।

মুহাররক আর রাজধানী মানামার বাঙালি গলির শতাধিক দোকান ঘুরে দেখা গেলো-এক ধরনের লম্বা কদু আসছে সৌদি আরব থেকে। জানা গেলো, এই কিসিমের কদুর কিছু চাষ বাহরাইনেও হচ্ছে। এমন আকৃতির কদু বাংলাদেশে দেখেছি বলে মনে পড়লো না। কাঁচামরিচ, মিষ্টি কুমড়া আর করল্লা আসছে সৌদি আরব ও ভারত থেকে।

সৌদি ছাড়াও চীন, ইয়েমেন আর লেবানন থেকে আসছে আলূ। ভারত আর চীন থেকে আসছে রসুন। কলার বাজারে একচেটিয়া ফিলিপাইনের দখল। ফ্রান্স, আফ্রিকা, চীন আর ইরান থেকে আসছে আপেল। কমলার বাজারে পাকিস্তান, মিশর আর সিরিয়ার দাপট।

চালের বাজার দখলে রেখেছে পাকিস্তান, ভারত আর থাইল্যান্ড। শিমের বাজারে সৌদির সঙ্গে আছে ওমান। আদার বাজার ভারত আর চীনের।

ডিম আসছে সৌদি, দুবাই, ভারত থেকে। বাহরাইনের স্থানীয় সরবরাহ আছে সামান্য।

মরিচের বাজারে ভারতেরও জায়গা আছে কিছুটা। ভারত, মিশর, পাকিস্তান আর ইযেমেন থেকে আসছে পিয়াজ। ওমান থেকে আসছে ধুন্দল।

তবে বাহরাইনে পারস্য উপসাগরের জল তুলে মরুভূমিতে সীমিত পরিসরে করল্লা, বেগুন, ফুলকপি, বাধা কপি, টমেটো, চাষ হচ্ছে। তবে ফুলকপি, বাধাকপি, ঝিংগা, তরাই, টমেটোর মূল চালান সৌদি থেকেই আসছে।
 
যথাযথ উদ্যোগ নিয়ে এ বাজারটা বাংলাদেশের দখলে আসতে পারে বলে মনে করেন বাহরাইন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫০৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৪

** বাংলার শ্রমবাজার দখলে নিচ্ছে শ্রীলঙ্কা-নেপাল!
** বাংলানিউজ, ওয়েলকাম টু বাহরাইন
** হরমুজ প্রণালী হয়ে আরব উপদ্বীপ ঘুরে বাহরাইন
** ‘ডেটলাইন বাহরাইন’, পৌঁছেছেন জাকারিয়া মন্ডল
** ‘ডেটলাইন বাহরাইন’, যাচ্ছেন জাকারিয়া মন্ডল

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বাহরাইন এর সর্বশেষ

Alexa