ঢাকা, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

বিএনপি

তদন্ত কর্মকর্তার ফের জেরার আবেদন খালেদার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৬
তদন্ত কর্মকর্তার ফের জেরার আবেদন খালেদার ছবি: দীপু মালাকার/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৩৪২ ধারায় আত্মপক্ষ সমর্থন করতে আদালতের এজলাসকক্ষে হাজির রয়েছেন প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তবে তার পক্ষে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদের পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণের আবেদন খারিজের পর পুনরায় জেরার আবেদন করেছেন তার আইনজীবীরা।

 

রোববার (১৭ এপ্রিল) বেলা সোয়া ১২টা থেকে দ্বিতীয় আবেদনটির শুনানি চলছে।    

 

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলা দু’টির বিচারিক কার্যক্রম চলছে রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের অস্থায়ী আদালতে।

সকাল নয়টা ৫০ মিনিটে গুলশানের বাসা থেকে আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা দেন খালেদা। সকাল সাড়ে দশটায় আদালত চত্বরে এসে পৌঁছে দশটা ৩৫ মিনিটে এজলাসকক্ষে ঢোকেন তিনি। এরপর দশ মিনিট আসামির কাঠগড়ার সামনে দাঁড়িয়ে থাকেন তিনি। দশটা ৪৫ মিনিট বিচারক এজলাসে বসার পর খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া তার বসার অনুমতি প্রার্থনা করেন। আদালত অনুমতি দিলে কাঠগড়ার সামনে রাখা তার জন্য নির্ধারিত চেয়ারে বসেন খালেদা।

পরে খালেদার পক্ষে তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদের পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণের আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। এ আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন খালেদার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। দেড় ঘণ্টা ধরে এ শুনানি শেষে আবেদনটি খারিজ করে দেন আদালত।

এরপর বেলা সোয়া বারটায় তদন্ত কর্মকর্তাকে পুনরায় জেরার আরও একটি আবেদন জমা দেন খালেদার আইনজীবীরা। এ আবেদনেরও শুনানি করছেন এ জে মোহাম্মদ আলী।

গত ৭ এপ্রিল জামিনে থাকা তিন আসামির আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন ধার্য থাকলেও খালেদা জিয়া হাজির না হয়ে আইনজীবীদের দিয়ে সময়ের আবেদন জানান। এ আবেদন মঞ্জুর করে ১৭ এপ্রিল দিন পুনর্নির্ধারণ করে তাকে হাজির থাকার আদেশ দেন আদালত।

ওইদিন জামিনে থাকা অন্য দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে বক্তব্য দেন। তারা কোনো সাফাই সাক্ষী দেবেন না এবং পরে লিখিত বক্তব্য দেবেন বলেও জানান।

রোববার আদালতে লিখিত বক্তব্য দাখিল করেছেন জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান।

গত ৩১ মার্চ ৩২তম ও শেষ সাক্ষী তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদকে আসামিপক্ষের জেরার মধ্য দিয়ে শেষ হয় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা।

অন্যদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর-রশিদকে আসামিপক্ষের জেরা চলছে। অসমাপ্ত জেরা ও নতুন সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণের দিনও ধার্য রয়েছে রোববার।

খালেদা জিয়ার পক্ষে আদালতে রয়েছেন তার আইনজীবী অ্যাড. খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, সৈয়দা আসিফা আশরাফী পাপিয়াসহ বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

দুদকের পক্ষে আছেন অ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল।    

খালেদার হাজিরাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে দলের সিনিয়র নেতারাও আদালতে উপস্থিত রয়েছেন। অন্যদিকে নিরাপত্তার স্বার্থে আদালতপাড়া ও আশপাশের এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ, ৠাব ও গোয়েন্দা বিভাগের সদস্যসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চার শতাধিক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।


বাংলাদেশ সময়: ১২২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৬
এমআই/এএসআর
 

** আত্মপক্ষ সমর্থনে আদালতে খালেদা

** আদালতে খালেদা, বাইরে হট্টগোল-মিছিল

** আদালতের পথে খালেদা, আদালত চত্বরে দলের সিনিয়র নেতারা

** আদালত চত্বরে কড়া নিরাপত্তা

** আত্মপক্ষ সমর্থনে আদালতে যাচ্ছেন খালেদা

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa