ঢাকা, সোমবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৪ জুন ২০২১, ০৩ জিলকদ ১৪৪২

বাজেট

স্বাস্থ্যশিক্ষা-গবেষণার দুর্বলতা কাটাতে ১শ কোটি টাকার তহবিল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১২ ঘণ্টা, জুন ১১, ২০২০
স্বাস্থ্যশিক্ষা-গবেষণার দুর্বলতা কাটাতে ১শ কোটি টাকার তহবিল

ঢাকা: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে স্বাস্থ্য-শিক্ষা ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি খাতের গবেষণায় ১শ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠনের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বৃহস্পতিবার (১১ জুন) বিকেল সোয়া ৩টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী এ প্রস্তাব করেছেন।
 
তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মোকাবিলার অভিজ্ঞতা আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার কিছু দুর্বলতা চিহ্নিত করেছে।

এর ফলশ্রুতিতে স্বাস্থ্যখাতে আমাদের দীর্ঘদিনের অর্জন টেকসই করা এবং ভবিষ্যতে মহামারি/মরণব্যাধির প্রাদুর্ভাব প্রতিরোধ ও মোকাবিলাসহ সামগ্রিকভাবে আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে উন্নত বিশ্বের কাতারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে পরিকল্পনা প্রণয়নের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। আজ সময় এসেছে উন্নত বিশ্বের স্বাস্থ্য-শিক্ষা ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি আত্মীকরণের পাশাপাশি নিজস্ব গবেষণাভিত্তিক জনস্বাস্থ্য-চিকিৎসা-শিক্ষা চিকিৎসাসেবার মেলবন্ধন ঘটিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য একটি উন্নততর স্বাস্থ্যসেবা সুনিশ্চিত করা।
 
‘করোনার মতো ভবিষ্যতে অন্য মহামারি দেখা দিলে তা মোকাবিলার জন্য টেকসই পদ্ধতি আবিষ্কার এবং রোগতত্ত্ব ও রোগ নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে যথাযথ গবেষণার প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও গবেষণার কাজে আমাদের জোরালোভাবে সম্পৃক্ত হতে হবে। দেশ হিসেবে যদি আমরা উন্নত বিশ্বের পর্যায়ে পৌঁছাতে চাই, সমন্বিত স্বাস্থ্য-শিক্ষা এবং বিজ্ঞান-প্রযুক্তি গবেষণা নীতিমালা প্রণয়ন, তহবিল গঠন ও এ খাতে ব্যয় বাড়ানোর কোনো বিকল্প নেই। ’
 
অর্থমন্ত্রী বলেন, সরকারের নানা বিভাগের সমন্বয়ের মাধ্যমে নতুন নতুন পলিসি তৈরি বা সংশোধন করে দেশকে একটি গবেষণা সংস্কৃতি উপহার দেওয়ার মাধ্যমে স্বাস্থ্যখাতকে রূপান্তর করাই আমাদের সরকারের উদ্দেশ্য। স্বাস্থ্য শিক্ষা, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি এবং এর গবেষণার জন্য একটি সমন্বিত বিজ্ঞান গবেষণা ও উন্নয়ন পলিসি তৈরি করা প্রয়োজন। এই পলিসি বা নীতিমালার লক্ষ্য হবে স্বাস্থ্য-শিক্ষা ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি গবেষণায় দেশকে ধীরে ধীরে উন্নত বিশ্বের সমকক্ষ করে তোলা।
  
মুস্তফা কামাল বলেন, স্বাস্থ্য-শিক্ষা ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি খাতের গবেষণার উন্নয়নে আমি ১শ কোটি টাকার একটি ‘সমন্বিত স্বাস্থ্য-বিজ্ঞান গবেষণা ও উন্নয়ন তহবিল’ গঠন করার প্রস্তাব করছি।
 
‘এ গবেষণা তহবিল দক্ষ ও কার্যকরভাবে পরিচালনা জন্য স্বাস্থ্য খাতে অভিজ্ঞ গবেষক, পুষ্টি বিজ্ঞানী, জনস্বাস্থ্য ও সমাজ বিজ্ঞানী, অর্থনীতিবিদ, পরিবেশবিদ এবং সুশীল সমাজ ও অন্য উপযুক্ত প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি গঠন করা হবে। ’
 
বাংলাদেশ সময়: ২১০৬ ঘণ্টা, জুন ১১, ২০২০
এমআইএইচ/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa