ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

৩ হাজার কোটির সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ ইক্যুইপমেন্ট কেনা হচ্ছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩০ ঘণ্টা, মে ৬, ২০২১
৩ হাজার কোটির সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ ইক্যুইপমেন্ট কেনা হচ্ছে

ঢাকা: ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় তিন হাজার কোটি টাকার সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ ইক্যুইপমেন্ট কেনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো এনামুর রহমান।

রাজধানীর বিয়াম ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ ট্যুয়ার্ডস সাইক্লোন রেজিল্যান্স থ্রু দ্যা লিগ্যাসি অব বঙ্গবন্ধু অ্যান্ড শেখ হাসিনা’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমি-ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ তথ্য জানান।

এনামুর রহমান বলেন, আমরা খুব আর্শীবাদপুষ্ট। কেননা, বঙ্গবন্ধুর পর আমরা তার কন্যা শেখ হাসিনাকে পেয়েছি। তিনি দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে এত অগ্রাধিকার দেন যে কখনো কোনো কিছুর প্রয়োজন হলে না করেন না। তার নেতৃত্বের কারণেই ইতোমধ্যে আমরা বিশ্বের দরবারে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য রুল মডেলে পরিণত হয়েছি।

‘সম্প্রতি একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। যে প্রকল্পের মাধ্যমে ঘূর্ণিঝড়ের সময় সার্চ অ্যান্ড রেসকিউয়ের জন্য যন্ত্রপাতি কেনা হবে। এতে ব্যয় হবে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি। প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে অনুমোদন দিয়েছেন। ’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতোই তার কন্যা শেখ হাসিনা প্রতিটা ঘূর্ণিঝড়ের সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসা পর্যন্ত ঘুমোতে যান না। সার্বক্ষণিক নিজে যোগযোগ রাখেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পর তিনি বলেন, এবার আমি ঘুমোতে যাচ্ছি। এটাই হচ্ছে তার লিগ্যাসি।

ন্যাশনাল ডিজাস্টার অ্যাডভাইজার কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী এবি তাজুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর পর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আর কেউ নতুন কোনো উদ্যোগ নেননি। তার প্রকল্পগুলোই একেকজন ক্ষমতায় এসে কেবল নাম পবির্তন করেছেন। কিন্তু শেখ হাসিনাই কেবল নতুন নতুন আরো অনেক প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। এরমধ্যে একটি হচ্ছে মুজিব কেল্লা।

তিনি বলেন, দুর্যোগ দুই ধরনের। মানবসৃষ্ট ও প্রাকৃতিক। প্রাকৃতিক দুর্যোগ আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। তবে কীভাবে সেটা ব্যবস্থাপনা করা যায়, তার পথ সারা পৃথিবীকে দেখিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহাসীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমদ,  ইউএনডিপির প্রতিনিধি ফরহাদ রেজা, ইউএনওমেন প্রতিনিধি দিলরুবা হায়দার, ইউএনডিআরআর প্রতিনিধি মারকো তোসকানো রিভালতা, রেডক্রিসেন্ট ইন্টান্যাশনালের আঞ্চলিক পরিচালক আলেকজান্ডার মেথিউ, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্টের সেক্রটারি জেনারেল ফিরোজ সালাউদ্দীন প্রমুখ।

বক্তরা এসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার কন্যা শেখ হাসিনার কৃতিত্ব তুলে ধরে এ ধারাকে অব্যাহত রাখার প্রতি জোর দেন। একই সঙ্গে তারা দুর্যোগের সময় নারী বৈষম্য বা নারী নির্যাতনের বিষয়টিকেও সামনে আসেন। সেই লক্ষ্যে কাজ করার জন্যও তাগিদ দেন। অন্যদিকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আরো দক্ষ লোকবল গড়ে তোলার জন্য আহ্বান জানান তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৮ ঘণ্টা, মে ০৬, ২০২১
ইইউডি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa