ঢাকা, শনিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

কর্পোরেট কর্নার

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ক্যাশভাউচার পেলেন ফেনীর ইসমত আরা

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২৩
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ক্যাশভাউচার পেলেন ফেনীর ইসমত আরা ওয়ালটনের পক্ষে চিত্রনায়ক আমিন খান গৃহিণী ইসমত আরা ইয়াসমিনের হাতে ২০০ শতাংশ ক্যাশ ভাউচার তুলে দিচ্ছেন।

ঢাকা: ব্যাপক উৎসবের আমেজে দেশব্যাপী চলছে ওয়ালটনের ‘ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-১৯’। এর আওতায় এবার ওয়ালটন ব্র্যান্ডের রেফ্রিজারেটর কিনে ২০০ শতাংশ ক্যাশভাউচার পেয়েছেন ফেনীর ছাগলনাইয়ার গৃহিণী ইসমত আরা ইয়াসমিন।

 

এর আগে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে ক্যাশভাউচার পেয়েছিলেন আরো দুই ক্রেতা। তারা হলেন রাজধানীর ফার্মগেটের বাসিন্দা নববধূ বিথী সাহা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে আহসানুল্লাহ আব্দুল হাই।  

শনিবার (২৫ নভেম্বর) ছাগলনাইয়া কলেজ রোডে ওয়ালটন প্লাজায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইসমত আরার হাতে ২০০ শতাংশ ক্যাশ ভাউচার তুলে দেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান।  

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফেনী চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক মুশফিকুর রহমান পিপুল, ওয়ালটনের চিফ ডিভিশনাল অফিসার শফিকুল আজাদ, ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম রেজা এবং ওয়ালটন প্লাজার ব্র্যান্ড ম্যানেজার ওয়াহিদুজ্জামান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, অনলাইনে গ্রাহকদের দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা নিশ্চিত করতে ডিজিটাল পদ্ধতিতে কাস্টমার ডাটাবেজ তৈরি করছে ওয়ালটন। সেজন্য সারা দেশে ওয়ালটন চালাচ্ছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন। সিজন-১৯ এর আওতায় দেশের যেকোনো ওয়ালটন প্লাজা, পরিবেশক শোরুম বা অনলাইন সেলস প্ল্যাটফর্ম ই-প্লাজা থেকে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ভাউচারসহ কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার পাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রেতারা। এই সুবিধা পাওয়া যাবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, উপজেলার পাঠানগড় এলাকার বাসিন্দা ইসমত আরা ইয়াসমিন। প্রবাসী স্বামীর পাঠানো টাকায় বাসায় ব্যবহারের জন্য চলতি মাসের ২১ তারিখে ওয়ালটন প্লাজা থেকে একটি ফ্রিজ কেনেন তিনি।  

ফ্রিজ কেনার পর তার নাম, মোবাইল নাম্বার ও ক্রয়কৃত ফ্রিজের মডেল নাম্বার ডিজিটাল পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশন করা হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই ওয়ালটন থেকে তার মোবাইলে ২০০ শতাংশ ক্যাশ ভাউচার পাওয়ার একটি এসএমএস আসে। ওই ক্যাশ ভাউচার দিয়ে তিনি ওয়ালটন ব্র্যান্ডের টিভি, ওয়াশিং মেশিন, ফ্যান, রাইস কুকার, ব্লেন্ডারসহ ঘরভর্তি ইলেকট্রনিক্স পণ্য কেনেন।  

ক্যাশ ভাউচার হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় উচ্ছ্বসিত ইসমত আরা বলেন, এরকম একটি ক্যাশ ভাউচার সুবিধা পাওয়া ভাগ্যের ও আনন্দের বিষয়। জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খানের হাত থেকে সরাসরি পুরস্কার নিতে পেরে আমি দারুণ খুশি। ওয়ালটন আমাদের দেশীয় পণ্য। দামে সাশ্রীয়; মানেও অনন্য। ওয়ালটনের টিভি ও মোবাইলসহ বিভিন্ন পণ্য ব্যবহার করছি। এবার কিনেছি ওয়ালটনের ফ্রিজ। সেই সুবাদে ক্যাশভাউচার পেয়ে আরও অনেক দরকারি ইলেকট্রনিক্স পণ্য নিতে পেরেছি। ওয়ালটন পরিবারের সবাইকে ধন্যবাদ।  

চিত্রনায়ক আমিন খান বলেন, কিছুদিন আগেও ফেনীতে ওয়ালটনের এক ফ্রিজ ক্রেতাকে ১০ লাখ টাকা হস্তান্তর করেছি। ইতোমধ্যে ওয়ালটনের পণ্যগুলো সারা দেশের মানুষের কাছে আলাদা গ্রহণ যোগ্যতা পেয়েছে। ওয়ালটন গ্রাহকদের শুধু আন্তর্জাতিকমানের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের পণ্যই তুলে দিচ্ছে না; সর্বোচ্চ বিক্রয়োত্তর সুবিধা প্রদানেও বদ্ধপরিকর।

এ সময় দেশে উৎপাদিত পণ্য কিনে দেশের অর্থনীতিকে সচল রাখতে অনুরোধ জানান আমিন খান।  

তিনি জানান দেশে তৈরি পণ্য কিনলে দেশের টাকা দেশেই থাকে। পাশপাশি ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা সম্ভব হয়।

জানা গেছে, ওয়ালটন ফ্রিজে গ্রাহকরা পাচ্ছেন এক বছরের রিপ্লেসমেন্টসহ কম্প্রেসরে ১২ বছর পর্যন্ত গ্যারান্টি ও পাঁচ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সুবিধা। এছাড়া আইএসও সনদপ্রাপ্ত ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আওতায় দেশব্যাপী বিস্তৃত ৮২টি সার্ভিস সেন্টার থেকে দ্রুত সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা পাচ্ছেন গ্রাহকরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২৩
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।