ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ শাবান ১৪৪৫

কর্পোরেট কর্নার

ডিজিপ্রো সল্যুশনস-রিকম কনসাল্টিংয়ের সঙ্গে জিপির পার্টনারশিপ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০২১
ডিজিপ্রো সল্যুশনস-রিকম কনসাল্টিংয়ের সঙ্গে জিপির পার্টনারশিপ

ঢাকা: নিজেদের ফাইন্যান্স ও অ্যাকাউন্টিং (এফঅ্যান্ডএ), কন্ট্রোল ও অপারেশন, ডিজিটাল ও পোস্টপেইড কালেকশন এবং চ্যানেল কালেকশনসহ অন্যান্য কাজের সুবিধার্থে গ্রামীণফোনের সাবেক কর্মীদের দ্বারা পরিচালিত স্টার্টআপ ‘ডিজিপ্রো সল্যুশনস’র সঙ্গে পার্টনারশিপ করেছে এবং এর বিদ্যমান পার্টনার ‘রিকম কনসাল্টিং’র সঙ্গে কার্যক্রমের পরিধি বিস্তৃত করেছে।

এ নিয়ে জিপি হাউসে সম্প্রতি একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তিতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন গ্রামীণফোনের চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার (সিএফও) ইয়েন্স বেকার, রিকম কনসাল্টিংয়ের ডিরেক্টর মো. সুদীপ্ত সালেহিন এবং ডিজিপ্রো সল্যুশনসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শোয়েবুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণফোনের চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অফিসার (সিএইচআরও) সৈয়দ তানভির হোসেন, প্রতিষ্ঠানটির হেড অব ফাইন্যান্সিয়াল কন্ট্রোলিং অ্যান্ড ট্যাক্সেশন মো. আরিফ উদ্দিন এবং গ্রামীণফোনের হেড অব কমিউনিকেশনস খায়রুল বাশার।

এ পার্টনারশিপের অধীনে নতুন প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্তি, ডিজিটালাইজেশন এবং আর্থিক ব্যবস্থাপনার মানোন্নয়নে বিশেষ নজর দেওয়ার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান দু’টি গ্রামীণফোনকে এর আর্থিক ও নগদ পরিচালনা ব্যবস্থা আধুনিকীকরণে সহায়তা করবে। যার মধ্যে থাকবে ডিজিটাল ও পোস্টপেইড কালেকশন, চ্যানেল কালেকশন, এমএফএস অপারেশন কালেকশন, প্রাতিষ্ঠানিক কালেকশন, নগদ ব্যবস্থাপনা, স্থায়ী সম্পদ ব্যবস্থাপনা, রেভিনিউ অ্যাকাউন্টিং, ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্টিং ও রিপোর্টিং।



গ্রামীণফোনের সিএফও ইয়েন্স বেকার বলেন, গ্রামীণফোনের আর্থিক কার্যক্রম সবসময় বিশ্বমান বজায় রেখে পরিচালিত হয়। যা প্রতিষ্ঠানকে লো-টাচ ডিজিটাল কার্যক্রম ও লেনদেন প্রক্রিয়াগুলো সঠিকভাবে পরিচালনায় ভূমিকা রেখেছে। আমরা আমাদের সাবেক দক্ষ কর্মীদের দ্বারা পরিচালিত স্টার্টআপগুলোর সাথে পার্টনারশিপ করতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। এ পার্টনারশিপ আমাদের কাজে গতিশীলতা আনবে এবং সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে। সঠিক দক্ষতা ও কর্মতৎপর মানসিকতার সাথে এই স্টার্টআপগুলো আমাদের আধুনিকায়নের যাত্রায় ডিজিটাল প্রক্রিয়া সন্নিবেশ করতে সহায়তা করবে।

গ্রামীণফোনের সিএইচআরও সৈয়দ তানভির হোসেন বলেন, কাজের পদ্ধতিতে ধারাবাহিকভাবে পরিবর্তন আনার প্রচেষ্টাই গ্রামীণফোনে আমাদের সাফল্য অর্জনে সহায়তা করে। স্টার্টআপগুলো এই খাতে সম্পূর্ণ নতুন প্রাণশক্তি এনে দিয়েছে। আমাদের লজিস্টিকস আরও দক্ষতার সাথে ও সময়োপযোগীভাবে পরিচালনার জন্য আমাদের কার্যক্রমে তাদের এ প্রাণশক্তি যুক্ত করতে পেরে আমরা আনন্দিত।

ডিজিপ্রো সল্যুশনসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শোয়েবুল ইসলাম বলেন, গ্রামীণফোনের সঙ্গে কাজ করার এটি একটি চমৎকার সুযোগ। আমরা কাজের প্রক্রিয়া সহজ করার মাধ্যমে যে সময় ও রিসোর্স রয়েছে তার যথার্থ ব্যবহারে বিশ্বাসী। আমরা আত্মবিশ্বাসী যে, গ্রামীণফোনকে ভবিষ্যৎ উপযোগী করে তোলার মাধ্যমে এর কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জনে সহায়তা করার সকল সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

রিকম’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক খন্দকার আতিকুর রহমান বলেন, সেবা প্রক্রিয়া সহজ করার মাধ্যমে গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জনে প্রবৃদ্ধির মানসিকতা তৈরি এবং কৌশলগত পরিবর্তন আনা গ্রামীণফোনের মতো একটি শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ পার্টনারশিপ এর সাথে সম্পৃক্ত সকল প্রতিষ্ঠান ও অংশীজনদের জন্য আরও নতুন সম্ভাবনা উন্মোচন করবে বলে আশা করছি।

উভয় প্রতিষ্ঠানই আগামী ১ জানুয়ারি থেকে তাদের সেবাদান কার্যক্রম শুরু করবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০২১
এমআইএইচ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।