ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

‘দুই দিনেই শেষ মিরপুর টেস্ট?’ যা বলছেন মিরাজ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (স্পোর্টস) | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
‘দুই দিনেই শেষ মিরপুর টেস্ট?’ যা বলছেন মিরাজ

মেহেদী হাসান মিরাজ যেন হাঁফ ছেড়েই বাঁচলেন। প্রায় মিনিট পনেরোর সংবাদ সম্মেলনের লম্বা অংশজুড়ে তাকে কথা বলতে হয়েছে উইকেট নিয়ে।

ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়েও আলাপ হয়েছে অনেক। বাউন্সার হয়ে আসা প্রশ্নে মেহেদী হাসান মিরাজ ‘পুল-হুক’ করেছেন বেশ ভালোভাবে।  

বিশ্বকাপের সময়ও ভালো উইকেটে না খেলা নিয়ে আলাপ হয়েছে অনেক। বুধবার যখন সংবাদ সম্মেলনে এলো প্রসঙ্গটি, মিরাজ তখন বললেন ‘লাল ও সাদা বলে ভিন্ন ভাবনার’ কথা। এরপর তার কাছে প্রশ্ন গেলো এমনও, মিরপুরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টটি কি দুই দিনেই শেষ হওয়ার সম্ভাবনা আছে?

তিনি বলেন, ‘আমরা দুই দিনে জেতার চেষ্টা করছি না, প্রক্রিয়া অনুসরণ করছি। টেস্টে অনেক কিছুই হতে পারে, অনেক দৃশ্যপট বাকি। কালকের দিন যেন নিজেদের করে নিতে পারি। দ্রুত খেলা শেষ করার চিন্তা করছি না। আমরা অতি আত্মবিশ্বাসী না। টেস্টে একসময় ওরা উপরে, একসময় আমরা উপরে থাকবো, এমন পরিস্থিতি আসে। ’

দিনশেষে ৫৫ রানে নিউজিল্যান্ডের পাঁচ উইকেট নিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু এর আগে পরিস্থিতিটা বেশ বাজেই ছিল স্বাগতিকদের জন্য। ১৭২ রানে অলআউট হয়ে যায় তারা। তখন ড্রেসিংরুমের কী অবস্থা ছিল? এমন প্রশ্ন ছিল মিরাজের জন্য।  

তিনি বলেন, ‘উইকেট অনুযায়ী আমরা ৩০-৪০ রান কম করেছি। ২০০ রানের বেশি করলে মনে করতাম আদর্শ স্কোর। ওখানেই ভুল করেছি। ৩০-৪০ রান আমরা অনেক সময়ই মিস করে যাই। যখন ৪০০ রান প্রয়োজন আমরা করি ৩৫০। এখানে আমাদের উন্নতি করতে হবে। একদিনে সম্ভব নয়, দিনকে দিন চেষ্টা করতে হবে। ’

‘ভালো জায়গায় যদি বল করি ওদের জন্য কঠিন হবে। আমরাও অনেক সংগ্রাম করেছি, রান করতে কষ্ট হয়েছে। এখানে আমরা খেলে অভ্যস্ত, জানি কন্ডিশন কেমন হতে পারে। আত্মবিশ্বাস ছিল, বোলারদের ওপর আস্থা ছিল। ভালো জায়গায় যদি বল করতে পারি, মিরপুরের উইকেটে আমাদের এডভান্টেজ বেশি থাকবে। এটাই চিন্তা করেছিলাম। ’

টেস্টে বাংলাদেশ এমনিতে খুব একটা সুবিধা করতে পারে না। সবশেষ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপেও শেষ করেছে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থেকে। এজন্য স্পিন সুবিধা নেওয়ায় কোনো সমস্যা দেখেন না মিরাজ। উদাহরণ টেনেছেন অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডকে হারানোরও।

তিনি বলেন, ‘আমরা যদি প্রতিপক্ষকে অলআউটই না করতে পারি তাহলে তো জিততে পারব না। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে অনেকটা এরকম উইকেটেই আমরা জিতেছি। আমাদের স্পিন অ্যাটাক ভালো, সুযোগ তো অবশ্যই থাকে। ’ 

‘ব্যাটারদের জন্য একটু চ্যালেঞ্জিং। তবে কমিটমেন্ট থাকলে, আরও ভালোভাবে খেললে ভালো করা যাবে। প্রথম ৩০ ওভার অনেক চ্যালেঞ্জিং যখন বল নতুন থাকে। বল পুরনো হলে ব্যাটারদের সুযোগ বেড়ে যায়। বল পুরনো হয়ে গেলে আর তেমন সুবিধা থাকে না বোলারদের। যেহেতু টেস্ট খেলা, প্রথম দিকে ব্যাটারদের দায়িত্ব নিতে হবে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০২৩
এমএইচবি/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।