ঢাকা, রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

মাত্র ১৩১ রানেই গুটিয়ে গেলো বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭১৪ ঘণ্টা, মার্চ ২০, ২০২১
মাত্র ১৩১ রানেই গুটিয়ে গেলো বাংলাদেশ

কথায় আছে, ‘সকালের সুর্য সবসময় দিনের সঠিক পূর্বাভাস দেয় না’। তার জ্বলন্ত উদাহরণ হয়ে থাকলো বাংলাদেশের ইনিংস।

 

ডানেডিনে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ট্রেন্ট বোল্টের করা ইনিংসের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলের ও নিজের রানের খাতা খুলেছিলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু এরপর আচম্বিতে মেঘে ঢেকে গেলো গণগণে সুর্যটা।  

টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৪১.৫ ওভারে মাত্র ১৩১ রানেই গুটিয়ে গেলো বাংলাদেশের ইনিংস। দলীয় শতরান পাওয়ার আগেই ৭ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপদে পড়ে টাইগাররা। বিপর্যয়ের সময় মাহমুউদউল্লাহ রিয়াদ (২৭) যা একটু ভরসা হয়ে ওঠেছিলেন।  

কিন্তু তিনি দলীয় ১২৫ রানে সাজঘরে ফেরার পর স্কোরবোর্ডে আর ৬ রান জমা পড়তেই শেষ ২ উইকেট তাসকিন আহমেদ (১০) ও হাসান মাহমু্দকে (১) হারায় বাংলাদেশ। মোস্তাফিজুর রহমান অপরাজিত ছিলেন ব্যক্তিগত ১ রানে ।

এর আগে কিউই বোলারদের সামনে অসহায় টাইগাররা ছিলেন আসা-যাওয়ার মাঝে। বোল্টের করা ইনিংসের চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরেন অধিনায়ক তামিম। টাইগার ওপেনার ১৫ বলে করেছেন ১৩ রান। তামিমের বিদায়ের পরপরই একই ওভারের চতুর্থ বলে ডেভন কনওয়ের হাতে বন্দী হয়ে বিদায় নেন সৌম্য সরকার (০)।  

জীবন পেয়েও ইনিংসটাকে বড় করতে পারেননি আরেক ওপেনার লিটন দাশ। তৃতীয় উইকেট হিসেবে বিদায় নেন তিনি। তার ৩৬ বলে ১৯ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ১ চারে।  

বিপদের সময় বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি কেউ। তবে দাঁড়াতে চেষ্টা করেছিলেন মুশফিকুর রহিম (২৩)। কিন্তু ৪৯ বল মোকাবেলা করেও তিনি ব্যর্থ হোন ব্যাট হাতে। এরপর রান আউটের শিকার হোন মোহাম্মদ মিঠুন (৯)।  তার বিদায়ের পর জোড়া আঘাত হেনে মেহেদী হাসান মিরাজ (১) ও মেহদেী হাসানকে (১৪) সাজঘরে ফেরান মিচেল স্যান্টনার।  

কিউইদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নিয়েছেন বোল্ট। দু’টি করে উইকেট ভাগাভাগি করেছেন জিমি নিশাম ও স্যান্টনার।  

বাংলাদেশ সময়: ০৭১৪ ঘণ্টা, মার্চ ২০, ২০২১
ইউবি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।