ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

ক্রিকেট

করুণারত্নের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি, দেড়শর পথে ধনঞ্জয়া

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২১
করুণারত্নের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি, দেড়শর পথে ধনঞ্জয়া

আলোর স্বল্পতার কারণে খেলা কিছুক্ষণ বন্ধ না থাকলে আরও আগেই হয়তো ডাবল সেঞ্চুরির দেখা পেয়ে যেতেন দিমুথ করুণারত্নে। তবে অল্প সময়ের ওই বিরতির পর আর দেরি করেননি লঙ্কান অধিনায়ক।

অন্যদিকে দেড়শর পথে ছুটছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

তৃতীয় সেশনের সপ্তম ওভারের প্রথম বলেই তাসকিন আহমেদের বলে বাউন্ডারি হাঁকান করুণারত্নে। আর তাতে টেস্ট ক্যারিয়ারের আগের সর্বোচ্চ ইনিংসকে (১৯৬) ছাড়িয়ে যান তিনি। একই ওভারের শেষ বলে ফের বাউন্ডারি হাঁকিয়ে তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি।  

দিনের প্রথম দুই সেশনে উইকেটের পতন হয়নি একটিও। বরং বাংলাদেশের বোলারদের হতাশ করে শ্রীলঙ্কার দুই ব্যাটসম্যান তৃতীয় সেশনে দলের সংগ্রহ নিয়ে যাচ্ছেন পাহাড়ের চূড়ায়। সবমিলিয়ে এই ম্যাচের ফলাফল যে ড্র হতে যাচ্ছে তাতে সন্দেহ করার সুযোগ নেই বললেই চলে।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৪৪ ওভারে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসের সংগ্রহ ৩ উইকেট হারিয়ে ৪৭৬ রান। ২০৮ রানে ব্যাট করছেন দিমুথ করুণারত্নে। ১৪৪ রান নিয়ে সঙ্গ দিচ্ছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

শনিবার ক্যান্ডির পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ৩ উইকেটে ২২৯ রান নিয়ে চলতি টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে শ্রীলঙ্কা।  

দিনের শুরুর দিকে সেঞ্চুরি তুলে নেন আগের দিন ৮৫ রানে অপরাজিত থাকা করুণারত্নে। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারের একাদশ, অধিনায়ক হিসেবে তৃতীয় এবং বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। তবে সেখানেই থামেননি তিনি। পরে তুলে নিয়েছেন প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।

অধিনায়কের সেঞ্চুরির কিছুক্ষণ পর ফিফটির দেখা পান আগের দিন ২৬ রানে অপরাজিত থাকা ধনঞ্জয়া। অন্যদিকে দেড়শর দিকে ছুটতে থাকেন করুণারত্নে।  
তবে অধিনায়ক দেড়শ ছোঁয়ার আগেই সেঞ্চুরি পেয়ে যান ধনঞ্জয়া। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারের সপ্তম ও বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

সেঞ্চুরি পাওয়ার পর উইকেটে আরও জেঁকে বসেন করুণারত্নে ও ধনঞ্জয়া। তৃতীয় সেশনের প্রথম দিকেই দেড়শ ছাড়িয়ে ডাবলের দেখা পেয়ে যান করুণারত্নে। ৩৮৭ বল খেলে এই ডাবলের ইনিংস তিনি সাজিয়েছেন ২১টি বাউন্ডারিতে।  

বাংলাদেশের বোলারদের জন্য প্রথম দুই সেশন ছিল একেবারেই নিষ্ফলা। কোনো উইকেট না হারিয়েই এই সময় ১০২ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় সেশনে আসে ১১১ রান। তৃতীয় সেশনের পরিণতিও সেদিকেই যাচ্ছে।

এর আগে ৭ উইকেট হারিয়ে ৫৪১ রান তোলার পর নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের চেয়ে ৩১২ রানে পিছিয়ে ছিল স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa