ঢাকা, রবিবার, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ক্রিকেট

বেশি ম্যাচ পেয়ে মধুর সমস্যায় বিসিবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৪ ঘণ্টা, জুলাই ২৮, ২০২২
বেশি ম্যাচ পেয়ে মধুর সমস্যায় বিসিবি

একটা সময় ম্যাচ নিয়ে বাংলাদেশের ছিল আফসোস। এখন পড়তে হচ্ছে মধুর বিড়ম্বনায়।

আগামী ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামে (এফটিপি) অনেকগুলো ম্যাচ খেলতে হবে বাংলাদেশকে। ক্রিকেটারদের খেলতে হবে একের পর এক ম্যাচ।  

তাদের ক্লান্তি থেকে মুক্তি দিতে সিরিজ কমানোর কথাও এসেছে। কিন্তু বিসিবির ক্রিকেট অপরাশেন্স ম্যানেজার জালাল ইউনুস বলছেন, প্রতিশ্রুতি দিয়ে দেওয়ায় এখন আর সিরিজ কমানো সম্ভব না। যদিও ক্রিকেটারদের বিশ্রামের প্রসঙ্গটি তাদের ভাবনায় আছে বলেই জানিয়েছেন জালাল।  

তিনি বলেছেন, ‘এফটিপি অলমোস্ট লক হয়ে গিয়েছে। সেখানে ২০২৩-২৭ এই চক্রে ৩৮-৪০টার মতো টেস্ট থাকবে। ৭০টার মতো টি-টোয়েন্টি আছে, ৭০টার মতো ওয়ানডেও আছে। কয়েকবছর আগেও এমন দেখা গেছে যে আমাদের তেমন একটা খেলা থাকত না। আমরা খেলার জন্য চেষ্টা করতাম, এফটিপিতে সেরকম সূচি পাওয়া যেত না। ’

‘এই চক্রে আমাদের খেলতেই হবে। পেশাদার হতে হলে আমাদের খেলতেই হবে। এখান থেকে বের হয়ে আসার উপায় নেই। খেলোয়াড়দের একটা বিশ্রাম দেয়ার ব্যপার থাকে। মূলত বিশ্রাম দরকার হয় পেস বোলারদের। সূচি অমন ব্যস্ত হলে তাদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর ব্যবস্থা আমরা করতে পারি। বাকিরা যারা ব্যাটার ও স্পিনাররা আছেন, আমি মনে করি না তাদের এই ব্যস্ত সূচিতে কোনো সমস্যা হবে। ’

অনুশীলনে বাড়তি নজর দেওয়ার কথা জানিয়ে জালাল বলেছেন, ‘যেটা আমাদের করতে হবে যে সামনে যে সিরিজগুলো রয়েছে সেগুলোর জন্য আরও বেশি গুছানো অনুশীলন ও বিশ্রাম সেশন ঠিকভাবে করতে পারি, তাহলে ২০২৭ পর্যন্ত আমরা ঠিকভাবেই সব করতে পারব। ’

‘২০২২ সালে একটু ঠাসা সূচি। ২০২৩-২৪ সালে সামনে গেলে দেখা যাবে এত ব্যস্ত সূচি নেই। কিছু সিরিজ চূড়ান্ত করে ফেলেছি হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে দুটোই। আমরা সামনে দেখব। তবে ২০২৭ পর্যন্ত যেসব খেলার প্রতিশ্রুতি রয়েছে এখান থেকে কমানো সম্ভব নয়। ’

বাংলাদেশ সময় : ২০১৫, জুলাই ২৮, ২০২২
এমএইচবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa