ঢাকা, শুক্রবার, ১২ মাঘ ১৪২৯, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিস্তারের আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী চলছে

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৪, ২০২২
বিস্তারের আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী চলছে বক্তব্য দেন বিস্তার আর্টস কমপ্লেক্সের পরিচালক কবি আলম খোরশেদ

চট্টগ্রাম: নগরের খুলশীর চিত্রভাষা আর্ট গ্যালারিতে চলছে আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী ‘শো আস দ্য ওয়ার্ল্ড’।  বিস্তার আর্টস কমপ্লেক্স চট্টগ্রাম ও চিত্রভাষা গ্যালারির যৌথ উদ্যোগে এ প্রদর্শনীটি চলবে মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) পর্যন্ত বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকেলে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন প্রবীণ নাট্যজন রবিউল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন নাট্যজন শিশির দত্ত, আলোকচিত্রী শোয়েব ফারুকী ও মইনুল আলম।

তিনটি মূল বিষয় ‘শান্তি, মুক্তি এবং বন্ধুত্ব’কে উপজীব্য করে এই প্রদর্শনীর সব আলোকচিত্র নির্বাচন করা হয়েছে। এ বছর জুলাই মাসে কানাডায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর যাত্রা শুরু। বাংলাদেশসহ বিশ্বের নয়টি দেশের ২৭ জন নবীন ও প্রবীণ আলোকচিত্রীর সংযোগ ঘটেছে এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শিল্পীদের ক্যামেরায় পৃথিবীর সৌন্দর্য, মমতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের সম্মিলিত বহিঃপ্রকাশ এসব আলোকচিত্র। প্রদর্শনীতে ৩০টি আলোকচিত্রের মধ্যে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করছেন বিখ্যাত দুই আলোকচিত্রী শোয়েব ফারুকী ও আবীর আব্দুল্লাহ।

বিস্তার আর্টস কমপ্লেক্সের পরিচালক কবি আলম খোরশেদ এবং চিত্রভাষা গ্যালারির মাহমুদ আলম সৈকতের সঞ্চালনায় নাট্যজন রবিউল আলম বলেন, এ প্রদর্শনীতে আন্তর্জাতিক আলোকচিত্রী সম্প্রদায়ের সঙ্গে আমাদের সংযোগ দেখে ভালো লাগছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের নয়টি দেশের ছবির ভাষার মাধমে স্বাধীনতা, বন্ধুত্ব এবং শান্তির বার্তা পাঠাতে আমরা একত্রিত হতে পেরেছি বলে বিস্তার আর্টস কমপ্লেক্স ও চিত্রভাষা গ্যালারিকে ধন্যবাদ।  

বিশেষ অতিথি শোয়েব ফারুকী জানান, আলোকচিত্রের মাধ্যমে স্বাধীনতা, শান্তি ও বন্ধুত্বের বোধে যাঁরা উদ্বুদ্ধ হতে চান, তাদের জন্য এ প্রদর্শনী গুরুত্বপূর্ণ। অনেক ভিড়ের চেয়েও একজন সত্যিকারের বোদ্ধা অসম্ভব জরুরি। আমরা চাই প্রত্যেকের কাছে একটি বার্তা পাঠাতে। শান্তি, স্বাধীনতা ও বন্ধুত্বের জন্য কাজ করার জন্য এর চেয়ে ভালো উদ্যোগ আর হতে পারে না। এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে আশা করি আমরা আমাদের নতুন প্রজন্মকে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় এই শিল্পমাধ্যমটির বিষয়ে আরও অগ্রহী করে তুলতে পারব।

উপস্থিত ছিলেন নাট্যব্যক্তিত্ব শিশির দত্ত। তিনি বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক ছবির ভাষার সঙ্গে যুক্ত হতে পেরেছি এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে। চট্টগ্রামের বিশাল ঐতিহ্যকে ধারণ করে নতুন আর্ট ফর্মের সঙ্গেও আমরা পরিচিত হয়েছি। করোনার বাধা পেরিয়ে আমরা বিশ্বের বিচিত্র ভাবনার সঙ্গে একত্রিত হতে পেরেছি, যা বেশ আশানুরূপ। এর মাধ্যমে বিশ্বের ঐতিহ্যকে রক্ষা করতেও আমরা এক ধাপ এগিয়ে গেলাম।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০২২ 
এআর/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa