ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ভারতের জওয়ানরাও রক্ত দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধে: মেয়র রেজাউল 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২২
ভারতের জওয়ানরাও রক্ত দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধে: মেয়র রেজাউল 

চট্টগ্রাম: ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অকৃত্রিম সহযোগিতার কথা তুলে ধরে মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, ভারতের জওয়ানরাও রক্ত দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধে। ভারত আমাদের দুর্দিনের, দুঃসময়ের বন্ধু।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) রাতে রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউর মোহনা হলে মৈত্রী দিবস (ফ্রেন্ডশিপ ডে) উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির দিনটি মৈত্রী দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়।

প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, অতিথি সিএমপি কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন, ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার ডা. রাজিব রঞ্জন ও মিসেস রাজিব রঞ্জন।

মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের কঠিন সময়ে বাংলাদেশের পাশে ছিল ভারত। দুই দেশের বন্ধুত্ব রক্তের আকরে লেখা। মুক্তিযোদ্ধাদের মতো ভারতের জওয়ানরা রক্ত দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধে। আমাদের দুর্দিনের বন্ধু। এ সম্পর্ক ছেদ হওয়ার নয়। ভারত সরকার এক কোটি বাঙালিকে আশ্রয় দিয়েছিল। খাদ্য, ওষুধ, মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র দিয়েছিল। আমাদের স্বাধীনতার জন্য আন্তর্জাতিক পর্যায়ে জনমত সৃষ্টি করেছিল।  

ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার ডা. রাজিব রঞ্জন বলেন, দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের সোনালি অধ্যায় চলছে। অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হতে চলছে। দুই দেশের বন্ধুত্ব অটুট রয়েছে, আগামীতেও অটুট থাকবে।

অনুষ্ঠানে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় প্রতিবেশী দেশ ভারতের অকৃত্রিম সহযোগিতাসহ দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ওপর তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। পরিবেশন করা হয় দুই দেশের জাতীয় সংগীত। সঞ্চালনায় ছিলেন আবৃত্তিশিল্পী রাশেদ হাসান।

ফিউশন মিউজিক পরিবেশন করেন ভারতের চেন্নায়ের ব্যান্ডদল অক্সিজেন।  

বাংলাদেশ সময়ঃ ২১১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২২
এআর/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa