ঢাকা, সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

মেয়র রেজাউল করিমকে সমন্বয়ক করা হয়নি: হানিফ

মিনহাজুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৭, ২০২২
মেয়র রেজাউল করিমকে সমন্বয়ক করা হয়নি: হানিফ ...

চট্টগ্রাম: তৃণমূলের সম্মেলন নিয়ে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগে সৃষ্ট দূরত্ব নিরসনে ঢাকায় কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে বৈঠকটি রোববার (১৬ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র  ও নগর আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল করিম চৌধুরী গণমাধ্যমে দাবি করেন, উনাকে প্রধান সমন্বয়ক করে ৬ সদস্যের একটি রিভিউ কমিটি করা হয়েছে।

এ কমিটি ইতোমধ্যে অনুষ্ঠিত ইউনিট সম্মেলনগুলো রিভিউ করবে।

এদিকে, নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক থাকতে অন্য কাউকে সমন্বক করার প্রশ্নই আসে না মন্তব্য করে ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করা চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বাংলানিউজকে বলেন, ‘চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছিরের ইচ্ছেতেই ৬ জন নেতাকে ১৪টি সাংগঠনিক থানায় ১৪টি তদারকি টিম করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এসব টিম ওয়ার্ড পর্যায়ে সম্মেলনের আয়োজন করবে, ইতোমধ্যে অনুষ্ঠিত ইউনিট সম্মেলন নিয়ে কোনো অভিযোগ থাকলে রিভিউ করে একটি প্রতিবেদন মহানগর আওয়ামী লীগকে দেবে এবং আরেক কপি আমাদের কাছে পাঠাবে। এখানে কাউকে আহ্বায়ক বা সমন্বয়ক করা হয়নি। ’

একই বিষয় নিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বাংলানিউজকে জানান, ‘মহানগরের ৬ জন সম্মানিত নেতাকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে ১৪টি সাংগঠনিক টিম গঠন করার জন্য। সাংগঠনিক টিমগুলো একেকটি থানার দায়িত্বে থাকবে। তারা ইতিমধ্যে সম্পন্ন ইউনিট সম্মেলন সম্পর্কে কোনো অভিযোগ থাকলে সেগুলো রিভিউ করে কেন্দ্রের কাছে সুপারিশ করবেন, সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম মনিটরিং করবেন, ওয়ার্ড কাউন্সিল ও থানা কাউন্সিল সর্বসম্মতভাবে করার পরিবেশ নিশ্চিত করবেন। ’

২০২১ সালের ১৬ নভেম্বর থেকে নগরের ৪৩টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডে ইউনিট সম্মেলন শুরু করে নগর আওয়ামী লীগ। ইতোমধ্যে কেন্দ্রের নির্দেশে ১০৬টি ইউনিটের সম্মেলন শেষ করেছে নগর আওয়ামী লীগ। ইউনিটের পাশাপাশি গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর থেকে ওয়ার্ড সম্মেলন শুরুর কথা ছিল। কিন্তু ইউনিট সম্মেলন নিয়ে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর কেন্দ্র থেকে গত ২৩ ডিসেম্বর ওয়ার্ড সম্মেলন বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে নগর আওয়ামী লীগে পরস্পর বিরোধী দুটি ধারার বিরোধ আরও জোরালো হয়। দুটি ধারার একটির নেতৃত্বে মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও আ জ ম নাছির উদ্দীন আছেন। আরেকটি ধারা প্রয়াত নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলয়ের। মহিউদ্দিনপুত্র মহিবুল হাসান চৌধুরী তাদের সঙ্গে আছেন। শেষের পক্ষটি কেন্দ্রে ইউনিট সম্মেলন নিয়ে লিখিত অভিযোগ দেন। কেন্দ্রের কাছে নালিশ দেওয়া পক্ষ তিনটি প্রস্তাবনা দেয়। সেগুলো হলো: মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশিত নগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা, ইতোমধ্যে যে সব ইউনিট কমিটি গঠনে অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে সেগুলো সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির মাধ্যমে রিভিউ করা, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত পরিমাণ তথ্য ফরম বিলি করে প্রতিটি ইউনিটে সদস্য বৃদ্ধি করা।  

১৬ জানুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। সভা পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। সভায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক ওয়াসিকা আয়েশা খান, চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, নঈম উদ্দিন চৌধুরী, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, অ্যাডভোকেট সুনীল সরকার, এম জহিরুল আলম চৌধুরী দোভাষ, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী, সংসদ সদস্য এম আবদুল লতিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম প্রমুখ। অন্যদিকে অসুস্থতার কারণে নগর আওয়ামী লীগের দুই সহ-সভাপতি ডা. আফসারুল আমিন চৌধুরী ও নুরুল ইসলাম বিএসসি সভায় উপস্থিত ছিলেন না।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৭, ২০২২
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa