ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

প্রস্তুত হচ্ছে আ.লীগের সমাবেশের মঞ্চ, প্রচারে ব্যস্ত নেতাকর্মীরা

মিনহাজুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২২
প্রস্তুত হচ্ছে আ.লীগের সমাবেশের মঞ্চ, প্রচারে ব্যস্ত নেতাকর্মীরা পলোগ্রাউন্ড মাঠে জনসভার মঞ্চ তৈরির কাজ চলছে পুরোদমে। ছবি: উজ্জ্বল ধর

চট্টগ্রাম: সমাবেশ শুরু হওয়ার মাত্র পাঁচ দিন বাকি। আগামী ৪ ডিসেম্বর নগরের পলোগ্রাউন্ড মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এ মহাসমাবেশ।

সমাবেশ সফল করতে নগর ও উপজেলায় চলছে প্রচারণা। নগর ছাড়াও চট্টগ্রামের দক্ষিণ ও উত্তর জেলা থেকে লাখের অধিক মানুষের সমাগম হবে বলে দলীয় নেতারা প্রত্যাশা করছেন।
 

এরই মধ্যে গত ১৫ নভেম্বর থেকে পলোগ্রাউন্ড মাঠে মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। মাঠের চারপাশের ভবন ছাড়াও নগর ও বিভিন্ন উপজেলায় রাস্তা ও ভবনে ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টারে ছেয়ে গেছে। দলের সভানেত্রীকে স্বাগত জানিয়ে এসব ব্যানার-ফেস্টুন টানানো হয়েছে। সমাবেশকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম মহানগর, দক্ষিণ ও উত্তর জেলা নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।  

এদিকে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা সমাবেশস্থল পরিদর্শন করছেন। একইসাথে তারা মঞ্চ তৈরির কাজেরও তদারকি করছেন। প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে ঘিরে যেন প্রচারণায় প্রতিযোগিতা চলছে। এক্ষেত্রে বাড়তি মাত্রা যোগ হয়েছে দলীয় সম্মেলন। আগামী ১২ ডিসেম্বর দক্ষিণ জেলা ও ১৮ ডিসেম্বর মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নির্বাচন কমিশনের (ইসি) রোডম্যাপ অনুযায়ী ২০২৩ সালের নভেম্বরে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ কিংবা ২০২৪ সালের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। তাই আওয়ামী লীগ নির্বাচনের এক বছর আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ড মাঠে সমাবেশের আয়োজন করেছে। আর সেখানে বিপুল লোকসমাগম ঘটিয়ে দলের শক্তি ও জনসমর্থনের প্রমাণ দেখাতে চায় ক্ষমতাসীনরা।

জানা গেছে, বর্ণিল উপস্থিতির জন্য আনোয়ারা-কর্ণফুলী উপজেলার সমর্থকরা সবুজ রঙের, পটিয়ার সমর্থকরা লাল রঙের, চট্টগ্রাম-৮ আসনের সমর্থকরা হলুদ রঙের, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সমর্থকরা সাদা রঙের, বাঁশখালীর সমর্থকরা নীল রঙের এবং চন্দনাইশের সমর্থকরা গোলাপি ও চকলেট রঙের টি-শার্ট পরিধান করে সমাবেশে যোগ দিবেন।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ সালাম বাংলানিউজকে বলেন, জনসভার জন্য সবধরনের প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের নেতাকর্মীরা দিন-রাত প্রচারণা চালাচ্ছেন। আশাকরি সকাল ১১টার মধ্যে মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠবে। মাঠের বাইরে সাত থেকে আটটি স্থানে এলইডি ডিসপ্লে ব্যবস্থা থাকবে, সেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ সবাই শুনতে পারবেন।  

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বাংলানিউজকে বলেন,  আমাদের ৪ ডিসেম্বরে জনসমাবেশ সফল করার জন্য চারদিকেই প্রচারণা চলছে। সারাদিন ট্রাকে করে প্রচারণা ও লিফলেট বিতরণ করছেন নেতাকর্মীরা। অনেকেই অলিগলিতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় আসার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন। আমাদের প্রতিটি থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট পর্যায়ে সভা হচ্ছে। প্রতিদিন আমাদের নির্দিষ্ট ২৪ স্থানে ও সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে মাইকিং হচ্ছে। আমাদের ৪৪টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডে আগামী ১, ২ ও ৩ ডিসেম্বর একযোগে মাইকিং ও প্রচারণা করা হবে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, আগামী ৪ ডিসেম্বর জনসভাকে জনসমুদ্র পরিনত করার জন্য আমাদের উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে চলছে প্রচারণা। সাংগঠনিক সভা করে নেতাকর্মীদের চাঙা করা হচ্ছে। অনেকেই আগেরদিন রাতেই জনসভার উদ্দেশ্যে শহরে জমায়েত হবেন।  

বাংলাদেশ সময়: ২১১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২২      
এমআই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa