ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

রাজ্যপালের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ সিপিএমের

রক্তিম দাশ. সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২০ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০১১

কলকাতা: রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান হিসাবে রাজ্যপালের যেখানে সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে প্রশাসন চালানো উচিত ছিল, সেখানে সাবেক বামফ্রন্ট সরকার আমলে রাজ্যপাল এম কে নারায়ণনের ভূমিকা পক্ষপাতদুষ্ট বলে অভিযোগ করেছে সিপিএম।

রাজ্যের সাবেক পুর-নগরউন্নয়ণমন্ত্রী ও সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য এই অভিযোগ করে বলেছেন,‘ রাজ্যপাল যদি বাম আমলে যথাযথ অবস্থান নিয়ে কাজ করতেন তাহলে রাজ্যকে আরও বেশ কয়েক দূর এগিয়ে নেওয়া যেত।



মূলত রাজ্যপালের সাহায্য না পেয়ে অনেকটাই থমকে দাঁড়িয়ে পড়তে হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেছেন, বামফ্রন্ট সরকার রাজ্যে নতুন ২০টি পুরসভা তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু রাজ্যপালের অসহযোগিতার কারণে সেই উদ্যোগ মাঝপথে থমকে যায়।

রাজ্যপালকে ফোন করে এ বিষয়ে জানানো হয়েছিল বলে দাবি করে তিনি বলেন, নির্বাচনের চার-পাঁচ মাস আগেই তার সঙ্গে দেখা করে সম্মতি চেয়েছিলাম। সম্মতি দেবেন বলেও জানিয়ে শেষ পর্যন্ত কোনও রহস্যজনক কারণে পিছু হটেন।

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণের পর শুক্রবার প্রথম রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করলেন মমতা ব্যানার্জি। তার সঙ্গে ছিলেন রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এদিন বিকালে মহাকরণ থেকে তিনি রাজভবনে যান।

প্রায় ১ ঘন্টা ধরে মমতা বৈঠক করেন এম কে নারায়ণনের সঙ্গে। কী নিয়ে এই বৈঠক তা বলা হয়নি।

মমতা জানান, এটি সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ।


ভারতীয় সময়: ২১৪৫ ঘন্টা, মে ২৭, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa