ঢাকা, রবিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

ন্যাশনাল ব্যাংকের ব্যাখ্যা

ব্যর্থতা থেকেই এমডি পদত্যাগ করেছেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩
ব্যর্থতা থেকেই এমডি পদত্যাগ করেছেন

ঢাকা: মেয়াদ শেষ হওয়ার ১১ মাস আগেই পদত্যাগ করেছেন ন্যাশনাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মেহমুদ হোসেন। গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সম্পর্কিত খবরের ব্যাখ্যা দিয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক।

ব্যাংকটি বলছে ব্যর্থতা থেকেই এমডি মেহমুদ হোসেন পদত্যাগ করেছেন।  

বুধবার (২৫ জানুয়ারি) ন্যাশনাল ব্যাংকের পক্ষ থেকে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে এমন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে।

ন্যাশনাল ব্যাংক জনায়, প্রকাশিত সংবাদে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডে সিকদার গ্রুপের হস্তক্ষেপ সংক্রান্ত নেতিবাচক যে সব কথা উল্লেখ করা হয়েছে, যা আদৌ সত্য নয়। বরং বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ম নীতি প্রতিপালনের মাধ্যমে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড তার কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

ব্যাংকটির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেহমুদ হোসেনের পদত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে উল্লেখ করে যে সব খবর প্রকাশিত হয়েছে, তা সঠিক নয়। পদত্যাগপত্রে ‘ব্যক্তিগত কারণ’ উল্লেখ করে তিনি পদত্যাগ করেছেন, প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করা হয়।

বলা হয়, মেহমুদ হোসেন এক বছরের বেশি সময় ব্যবস্থাপনা পরিচালক থাকাকালীন ব্যাংকের কোনো সফলতা না আসায় প্রশ্নের সঠিক জবাব না দিতে পেরে উদ্বিগ্নতা থেকেই পদত্যাগ করেছেন।

আরও বলা হয়, গত ১৬ জানুয়ারি রাজধানীর বনানীর ১১ নম্বর সড়কের সিকদার হাউজে ন্যাশনাল ব্যাংকের ৭-৮ জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেহমুদ হোসেন এবং ব্যাংকের পরিচালকরা রিকভারি ও নন-পারফর্মিং লোন (এনপিএল) সংক্রান্ত মিটিংয়ে যোগ দেন। ওই মিটিংয়ে অডিট কমিটির পক্ষ থেকে তাকে ব্যাংকের বিভিন্ন ইন্ডিকেটর ও সামগ্রিক পারফর্মেন্স নিয়ে প্রশ্ন করা হয়।

ওই মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৯ জানুয়ারি অডিট কমিটির মিটিংয়ে উপস্থিত থেকে সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালককে বিভিন্ন বিষয়ের ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। এসময় তিনি যথেষ্ট উদ্বিগ্ন ছিলেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ১৮ জানুয়ারি পরিচালনা পর্ষদের কাছে তিনি ছুটির জন্য আবেদন করেন। পরবর্তী সময়ে একই দিনে তিনি ‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখিয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

বহু স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের মতো সিকদার হাউজেও নিয়ম অনুযায়ী মিটিং চলার সময় সব কর্মকর্তা ও পরিচালকদের মোবাইল ফোন বন্ধ করে নিরাপদ দূরত্বে রাখা হয়। ফলে ওই মিটিংয়ের সময়ও সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেহমুদ হোসেনসহ উপস্থিত সবাই মোবাইল ফোন বন্ধ করে মিটিংয়ে অংশ নেন।

ন্যাশনাল ব্যাংকে সিকদার গ্রুপ হস্তক্ষেপ করে না উল্লেখ করে বলা হয়, ন্যাশনাল ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ম নীতি প্রতিপালনের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

বাংলাদেশ সময় ০১৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩
জেডএ/এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।