ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ মে ২০২২, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

১০ টাকার হিসাবধারীদের ঋণ নিশ্চিতে ‘গ্যারান্টি স্কিম’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২২
১০ টাকার হিসাবধারীদের ঋণ নিশ্চিতে ‘গ্যারান্টি স্কিম’

ঢাকা:  ১০, ৫০ ও ১০০ টাকার হিসাবধারী প্রান্তিক, ভূমিহীন কৃষক, নিম্ন আয়ের পেশাজীবী, স্কুল ব্যাংকিং হিসাবধারী এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ঋণ পাওয়া নিশ্চিত করতে ‘আর্থিক সেবাভুক্তি ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম’ নামে গ্যারান্টি স্কিম চালু করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) এ বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করে সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর আগে ২০২১ সালের ৫ সেপ্টেম্বর প্রান্তিক, ভূমিহীন কৃষক, নিম্ন আয়ের পেশাজীবী, স্কুল ব্যাংকিং হিসাবধারী এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ঋণ বিতরণে ৫০০ কোটি টাকার একটি তহবিল গঠন করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোবারের সার্কুলারে বলা হয়েছে, পুনঃঅর্থায়ন স্কিম এর আওতায় গ্রাহক পর্যায়ে ঋণ বা বিনিয়োগের বিপরীতে ক্রেডিট গ্যারান্টি পাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যাংক কর্তৃক ক্রেডিট গ্যারান্টি সুবিধা গ্রহণের জন্য ব্যাংকসমূহকে সিজিএস ইউনিটের সঙ্গে একটি অংশগ্রহণ চুক্তি সম্পাদন করতে হবে। ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশন ডিপার্টমেন্টের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ সব অংশগ্রহনকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠান সিজিএস ইউনিটের সঙ্গে অংশগ্রহণ চুক্তি সম্পাদন করার জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

সার্কুলারে আরও বলা হয়েছ, সংশ্লিষ্ট ব্যাংকসমূহের আবেদনের ভিত্তিতে গভর্নরের অনুমোদন সাপেক্ষে বছরের যে কোন সময়ে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে পারে। অত্র সার্কুলারের নির্দেশনা এবং এ সার্কুলারে উল্লেখ নেই এমন ক্রেডিট গ্যারান্টি সংক্রান্ত যে কোন বিষয়ে সিজিএস ইউনিট ২০২০ সালের ৩ নভেম্বর জারীকৃত ম্যানুয়ার ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম এবং অন্যান্য নির্দেশনা সংশ্লিষ্ট সবাইকে যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে। এ স্কিমের আওতায় ঋণ বা বিনিয়োগের জন্য অত্র ইউনিট কর্তৃক প্রদত্ত মোট গ্যারান্টির সর্বোচ্চ ত্রিশ শতাংশ পর্যন্ত পোর্টফোলিও গ্যারান্টি ক্যাপ (কভারেজ) দেওয়া হবে। উক্ত পোর্টফোলিও গ্যারান্টি ক্যাপের আওতায় কোন একক উদ্যোক্তা, ঋণ বা বিনিয়োগ গ্রহীতার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ পর্যন্ত গ্যারান্টি কভারেজ দেওয়া হবে। উপরোক্ত এফআইডি সার্কুলার নম্বর-১ (২০২১) এ বর্ণিত প্রকৃতির উদ্যোক্তাগণ এফআইডি হতে সংশ্লিষ্ট স্কিমের পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা প্রাপ্তির আওতায় ঋণ বা বিনিয়োগের বিপরীতে অত্র স্কিম হতে ক্রেডিট গ্যারান্টি সুবিধা গ্রহণের যোগ্য মর্মে বিবেচিত হবে। ঋণ বা বিনিয়োগের জন্য নির্ধারিত মেয়াদই হবে এ স্কিম এর আওতায় প্রাথমিকভাবে গ্যারান্টির মেয়াদ। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ঋণ বা বিনিয়োগ সম্পূর্ণ আদায় হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্ট ঋণ বা বিনিয়োগের গ্যারান্টির মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে।

তবে, কোন ঋণ বা বিনিয়োগ পুনঃতফসিল অথবা পুনর্গঠন করা হলে উক্ত পুনঃতফসিল-পুনর্গঠন সময়কাল গ্যারান্টির মেয়াদ হিসেবে গণ্য হবে। এক্ষেত্রে ঋণ বা বিনিয়োগের মেয়াদ বৃদ্ধি এবং পুনঃতফসিল বা পুনর্গঠন এর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে সিজিএস ইউনিট হতে গ্যারান্টির মেয়াদ বৃদ্ধি করে নিতে হবে এবং বর্ধিত সময়ের জন্য গ্যারান্টি ফি দিতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২২
এসই/এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa