ঢাকা, বুধবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

আইসিসিবিতে উড-ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো শেষ হচ্ছে রাতে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
আইসিসিবিতে উড-ইলেক্ট্রিক্যাল এক্সপো শেষ হচ্ছে রাতে ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ষষ্ঠ বাংলাদেশ বিল্ডকন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো শেষ হচ্ছে শনিবার (২৬ নভেম্বর)। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চলছে তিনদিনের এ নির্মাণ ও গৃহসজ্জা শিল্পপণ্যের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী।

এতে বাংলাদেশসহ মোট ১০টি দেশের প্রায় ২০০টি প্রতিষ্ঠানের দুই হাজারেরও বেশি বিল্ডিং ও কনস্ট্রাকশন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য স্থান পেয়েছে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে আইসিসিবিতে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নির্মাণ অবকাঠামো, আসবাবপত্র, ইলেক্ট্রিক্যালের সঙ্গে সম্পৃক্ত লোকজন সকাল থেকেই মেলা প্রাঙ্গণে আসছেন। তবে আয়োজকদের প্রত্যাশা আজ দর্শনার্থীদের সমাগম বাড়বে।

বিশ্বের সর্বাধুনিক নির্মাণ অবকাঠামো, কাঠ ও আসবাবপত্র এবং ইলেক্ট্রিক্যাল সংশ্লিষ্ট শিল্পের নতুন উদ্ভাবন, প্রযুক্তি ও পণ্যের প্রদর্শনীতে আসা দর্শনার্থীরা জানিয়েছেন, এমন প্রদর্শনী প্রতিবছর হলে নতুন নতুন পণ্যের সঙ্গে পরিচিত হওয়া যায় এবং দেশি-বিদেশি কোম্পানি সম্পর্কে জানা যায়।

প্রদর্শনীতে আসা খিলক্ষেতের আসাদুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, এমন প্রদর্শনীতে এসে নতুন বেশ কিছু প্রযুক্তি সম্পন্ন রোড ক্লিনার, এসফল্ট প্লান্ট, ক্যাবল, বিভিন্ন লক, কাটার, উডেন সম্পর্কে পরিচিত হলাম। এতে নতুন কিছু বিদেশি কোম্পানির সঙ্গেও যোগাযোগ হয়েছে। এমন প্রদর্শনী নিয়মিত হওয়া দরকার।

ভারতীয় কোম্পানি কৌশিক ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিরজ শাহ বলেন, আমরা সড়ক নির্মাণ নিয়ে কাজ করছি। আমরা বাংলাদেশে গত ২২ বছর ধরে আছি। মেলাতে অনেকেই এসেছেন, যারা আমাদের বিভিন্ন পণ্য ব্যবহার করছেন এবং তাদের অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন। মেলাতে আসা দর্শনার্থীদের রেসপন্স অনেক ভালো।

বিআরবি কেবলস এর মার্কেটিং অফিসার মো. আবু তালেব আকন্দ বলেন, আমরা মূলত কেবল, ফ্যান, সুপার এনামেল কপার ওয়ার, অপটিক্যাল ফাইবার পণ্য এখানে নিয়ে এসেছি। খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি। বিশেষ করে আমাদের কেবল খুবই ভালো রেসপন্স পাচ্ছে। এক্সট্রা হাই-ভোল্টেজ ক্যাবল, ইউএসবি ক্যাবল নিয়ে মানুষ সবচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছে। মেলাতে আসা অনেক দর্শনার্থীই তাদের ক্যাবল ব্যবহারের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে বলছেন।

স্মার্ট ইকো উডের ম্যানেজার মো. মিঠুন আহমেদ বলেন, আমরা মূলত দরজা, চৌকাঠ, বোর্ড, টিম্বার টিউব, উডেন ফ্লোর নিয়ে কাজ করছি। বৃহস্পতিবার একটু কম সাড়া পেলেও শুক্রবার দারুণ সাড়া পেয়েছি। দিনভর দর্শনার্থীরা আসছেন, তারা জানতে চেয়েছেন আমাদের পণ্য সম্পর্কে। মেলাতে অনেকেই আমাদের স্টল ঘুরেছেন এবং আমাদের প্রডাক্টের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেছে। বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি।

ওয়েনার ব্র্যান্ডের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নাজমুল হাসান বলেন, মূলত আমরা সুইচ, সকেট, সার্কিট ব্রেকার, এইচডিবি ব্রেকার এ টাইপের পণ্যের প্রদর্শনী করছি। কাঁচামালগুলো বাইরে থেকে নিয়ে এসে প্রোডাকশন করি। এরপর সেগুলো ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করি। আশা করছি, এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে আমাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসার বাড়বে।

আয়োজক সংশ্লিষ্টরা জানায়, বাংলাদেশের নির্মাণ এবং আসবাবপত্র শিল্পকে আরও আধুনিকীকরণ এবং এর উৎপাদন বাড়ানো ও মানোন্নয়নে সক্ষম করতে তাদের এ আয়োজন। সেইসঙ্গে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিকে স্থানীয় শিল্পের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এ প্রদর্শনীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অংশ নিয়েছে। এছাড়া, বাংলাদেশে বর্তমানে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বিশ্বমানের পণ্য তৈরি হচ্ছে, যা প্রদর্শনীতে বিশেষভাবে তুলে ধরা হচ্ছে।

আয়োজকরা আরও জানায়, ইভেন্টের মূল উদ্দেশ্য হলো বাংলাদেশের আসবাবপত্র, নির্মাণ এবং বৈদ্যুতিক শিল্পকে বিকল্প সরবরাহকারী খুঁজে বের করা, খরচ সাশ্রয় করা এবং নতুন সমাধান খুঁজে বের করা।

এএসকে ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেড, ফিউচারেক্স ট্রেড ফেয়ারস অ্যান্ড ইভেন্টস প্রাইভেট লিমিটেড এবং বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে ট্রেড শোটির আয়োজন করা হয়েছে। ষষ্ঠ বাংলাদেশ বিল্ডকন, উড এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো প্রতিদিন সকাল ১১ থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এইচএমএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa