ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে নতুন পথ দেখেছে জুয়েলারি ব্যবসা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে নতুন পথ দেখেছে জুয়েলারি ব্যবসা

খাগড়াছড়ি: সম্ভাবনাময় স্বর্ণ শিল্পকে তিন পার্বত্য জেলাতেও ব্যবসায়িকভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বিকল্প নেই। বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস)  প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের নেতৃত্বে জুয়েলারি ব্যবসা নতুন পথ দেখেছে।

তার হাত ধরেই স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা এক ছাতার নিচে সমবেত হয়েছেন। এতে পুরো দেশে এ ব্যবসার এক নতুন সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

খাগড়াছড়িতে বাজুসের মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন বক্তারা।

শনিবার(২৬ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পরিষদ হর্টিকালচার পার্কে এ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাজুসের সহ-সভাপতি ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন।

জেলা আহ্বায়ক বাবুল কান্তি ধরের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন বাজুসের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি পবিত্র চন্দ্র ঘোষ, কার্য-নির্বাহী সদস্য মো. রিপনুল হাসান, বাজুসের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা, বিভাগীয় সহ-সভাপতি সুধীর রঞ্জন বনিক, দীলিপ কুমার ধর, যুগ্ন সম্পাদক কাজল বনিক, শ্যামল সরকার, উজ্জল ধর প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা তাদের নানা সমস্যা ও অসুবিধার কথা তুলে ধরে বলেন, চট্টগ্রাম থেকে স্বর্ণ ক্রয় করে খাগড়াছড়িতে নিয়ে আসতে বিভিন্ন হয়রানির শিকার হতে হয়। চালানপত্র ও রিসিভ দেওয়া হয় না বলেও জানান তারা। জবাবে বাজুসের কেন্দ্রীয় ও বিভাগীয় নেতারা এসব সমস্যা সমাধানে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করার আশ্বাস দেন।

কেন্দ্রীয় নেতারা জেলার সর্বস্তরের জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের বাজুসের সদস্য হওয়ার পরামর্শ দেন। খাগড়াছড়িতে নিখাদ স্বর্ণ ব্যবসার পাশাপাশি এবং গ্রাহকদের উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে হলমার্ক মেশিন স্থাপনের অনুরোধ জানান। প্রয়োজনে যৌথভাবে তা করার ওপর জোর দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাজুসের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন বলেন, খুব কম সময়ের মধ্যেই বাজুসের প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর স্বর্ণ ব্যবসার রূপকার হয়ে উঠেছেন। দিকনির্দেশনার মাধ্যমে স্বর্ণ শিল্পকে বাংলাদেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় শিল্পে পরিণত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, যোগ্য পিতার যোগ্য সন্তান সায়েম সোবহান আনভীর দায়িত্ব নেয়ার পর ঐক্যবদ্ধ বাজুস গড়ে তুলেছেন। খাগড়াছড়ির জুয়েলারি ব্যবসায়ীদেরকে একটি মাত্র প্লাটফর্মের সঙ্গে সংযুক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বাজুস প্রেসিডেন্টের প্রতিনিধি হিসেবে এখানে এসেছি। আপনাদেরকে সাংগঠনিকভাবে আরো শক্তিশালী হতে হবে।

তার আগে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে মতবিনিময় সভার সূচনা হয়। এরপর অতিথিদের ফুল ও উত্তরীয় পরিয়ে স্বাগত জানান স্থানীয় নেতারা।

বাজুসের প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীরের পক্ষে সন্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন।  

এছাড়া অতিথিদের সন্মানে ঐতিহ্যবাহী পাহাড়ি নৃত্য পরিবেশন করা হয়। চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা ও বাঙালি ঐতিহ্যের নাচ দেখে অতিথিরা মুগ্ধ হন।

জেলার সর্বস্তরের স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা মতবিনিময় সভায় অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এডি/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa