ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

বুয়েট পরিস্থিতি

ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে আলোচনায় বসতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০১২
ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে আলোচনায় বসতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষকদের চলমান কর্মবিরতি ও শিক্ষক সমিতির দাবিদাওয়া বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বিবৃতি প্রদান করেছেন। তিনি ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে শিক্ষকদেরকে আলোচনায় বসে সমস্যার সমাধানের আহবান জানিয়েছেন।



বিবৃতিতে তিনি বুয়েটকে দেশের সবচেয়ে মেধাবীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, মেধাবী ছাত্রছাত্রীরা এখানে পড়ালেখা করে এবং মেধাবী, আধুনিক প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও কারিগরি জ্ঞানে অভিজ্ঞ শিক্ষকগণ তাদের শিক্ষা দেন। সারাদেশে এ বিদ্যাপীঠের ভাবমূর্তি আপন কৃতিত্বে সমুজ্জ্বল।
 
তিনি আরও বলেন, বুয়েটের ছাত্রছাত্রীরাই দেশের প্রকৌশল ও কারিগরি উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি। একটি দিনের জন্য ক্লাশ বন্ধ হলেও তাতে এ প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের অপূরণীয় ক্ষতি হয়। তাদের তা কাটিয়ে উঠতে প্রাণান্ত বেগ পেতে হয়। যা শিক্ষার্থী, শিক্ষক. অভিভাবকসহ দেশের আপামর জনসাধারণের জন্য কাম্য নয়।

এতে আরও বলা হয়, সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ বুয়েটের শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সাথে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করে তাঁদের দাবির বিষয়গুলো তুলে ধরেন। মন্ত্রী ধৈর্য সহকারে তা শোনেন এবং উপাচার্যসহ সংশ্লি¬ষ্টদের সাথে বসে আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করার পরামর্শ দেন।

এবিষয়ে তিনি নিজেও উপাচার্যের সাথে আলোচনা করবেন বলে শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দকে জানান।

পরে শিক্ষামন্ত্রী উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের সাথে বৈঠক করে বিস্তারিত আলোচনা করেন। তিনি উপাচার্যকে আজ শুক্রবারের মধ্যে শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের পরামর্শ দেন। উপাচার্য মন্ত্রীর পরামর্শ মতো ব্যবস্থা নেয়ার নিশ্চয়তা দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যে সকল বিষয়ে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে বা মতভেদ দেখা দিয়েছে তা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার পরিবেশ ব্যাহত হওয়ার মতো বিষয় নয়। এগুলো সম্পূর্ণ প্রশাসনিক পদক্ষেপের কিছু বিষয়।

তাই এগুলো নিয়ে কোন মহলেরই এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করা উচিত নয়- যা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ ও আমাদের মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম কোনভাবে প্রভাবিত বা ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। তাই আলোচনার মাধ্যমে প্রশাসনিক সমস্যাদির সমাধান করার জন্য সংশ্লি¬ষ্ট সকলের প্রতি বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন।

তিনি শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম কোনো ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না করে অব্যাহত রাখার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার প্রেক্ষিতে বুয়েট-এর শিক্ষক সমিতির ডাকে গত ৭ এপ্রিল থেকে কর্মবিরতি পালন করছেন শিক্ষকরা।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০১২
এনএস/
সম্পাদনা: নূরনবী সিদ্দিক সুইন, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa