ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

নির্বাচন ও ইসি

নাটোরের বনপাড়া পৌর নির্বাচনে আ’লীগের একক প্রার্থী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৬, ২০১৭
নাটোরের বনপাড়া পৌর নির্বাচনে আ’লীগের একক প্রার্থী

নাটোর: ২৮ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নাটোরের বনপাড়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান মেয়র কেএম জাকির হোসেন।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত দলের বিশেষ এক বর্ধিত সভায় তৃণমূলের নেতাদের ভোটের মাধ্যমে তাকে ওই পদে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়।

বনপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বাংলানিউজকে জানান, বনপাড়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মোট ১৩ জন আগ্রাহী প্রার্থী ছিলেন।

এদের মধ্য থেকে একক প্রার্থী ঘোষণার লক্ষ্যে বিশেষ বর্ধিত সভায় পৌর আওয়ামী লীগের ১২টি ওয়ার্ডের সভাপতি ও সম্পাদককে নিজ নিজ পছন্দের প্রার্থীর নাম কাগজে লিখে বাক্সে জমা দিতে বলা হয়।

তাদের মতামত গণনা করে দেখা যায়, বর্তমান মেয়র কেএম জাকির হোসেন ছাড়া অন্য কোনো প্রার্থীর পক্ষে একজনও মতামত দেননি। পরে সবার উপস্থিতিতে সর্বসম্মতি ক্রমে কেএম জাকির হোসেনকে দলীয় একক প্রার্থী ঘোষণা করা হয়।

বনপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র কেএম জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে ওই সভায় বক্তব্য রাখেন-জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি একেএম শাহজাহান কবির, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ও বড়াইগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা, বড়াইগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল জলিল, সম্পাদক মিজানুর রহমান, পৌর সম্পাদক আতাউর রহমান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১২ নভেম্বর বনপাড়া পৌরসভার সাধারণ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমা দেওয়া, ২৮ ও ২৯ নভেম্বর যাচাই বাচাই, ৬ ডিসেম্বর মধ্যে প্রার্থীতা প্রত্যাহার এবং ২৮ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

২০০২ সালের ৩১ ডিসেম্বর ৬.৯২ বর্গকিলোমিটার জায়গায় গঠিত পৌরসভায় সর্বশেষ নির্বাচন হয়েছে ২০১১ সালের ১২ জুন।

পৌরসভাটি আগের ৯টি ওয়ার্ড থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১২টি ওয়ার্ডে উন্নীত হয়েছে। বর্তমানে ১১.১৬ বর্গকিলোমিটারের ’ক’ শ্রেণির এই পৌরসভায় মোট ভোটার রয়েছে  ২১ হাজার ২ শত ৫৪ জন এর মধ্যে নারী ভোটার ১০ হাজার ৭ শত ৪৪ জন। মেয়াদোত্তীর্ণ হলেও সীমানা জটিলতার কারণে দীর্ঘদিন এ পৌরসভায় নির্বাচন বন্ধ ছিল।

বাংলাদেশ সময়: ০৬১১ ঘণ্টা, ১৬ নভেম্বর, ২০১৭
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa