ঢাকা, সোমবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

নির্বাচন

পৌর নির্বাচন

ছাগলনাইয়া আ.লীগ প্রার্থীর গলার কাঁটা স্বতন্ত্র

সোলায়মান হাজারী ডালিম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
ছাগলনাইয়া আ.লীগ প্রার্থীর গলার কাঁটা স্বতন্ত্র

ফেনী: আসন্ন দুই নভেম্বরের ছাগলনাইয়া পৌর নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম ভোটের মাঠ। দিন-রাত প্রচারণা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা।

বিএনপি,জামাত, জাসদ, জাতীয় পার্টিসহ অন্য দলের মেয়র প্রার্থী না থাকলেও নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের প্রার্থীর গলার কাঁটা হয়ে আছেন নিজেদের দলেরই আরেক নেতা। এ অবস্থায়  নানা সমীকরণ মিলাচ্ছেন ভোটাররা। শেষ পর্যন্ত কি হয় তা দেখার অপেক্ষায় স্থানীয়রা।

‘ক’শ্রেণীর এ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্ধিতায় রয়েছেন দুইজন।  

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ মোস্তফা এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর মোহাম্মদ জাকের হয়দার সুমন। জাকের হয়দার স্বতন্ত্র প্রার্থী হলেও তিনি ছাগলনাইয়া উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ও জাতীয় একটি দৈনিক পত্রিকার স্থানীয় প্রতিনিধি।

ভোটের মাঠে ঘুরে ও ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ ভোটকে ঘিরে উত্তেজনা কাজ করছে। আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মো. মোস্তফা প্রচার প্রচারণায় এগিয়ে আছেন। তার পোস্টার-ব্যানারে ছেয়ে গেছে পৌর শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে পাড়া মহল্লার অলি গলি।

মো. মোস্তফা জানান, গত মেয়রের দায়িত্বে থেকে জনগনের পাশে থেকে সেবা করার চেষ্টা করেছি। পৌরসভার অনেক উন্নয়ন হয়েছে এ সময়ে। সে বিবেচনায় জনগণ আবার তাকে বিপুল ভোটে জয়ী করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে নৌকা প্রতীক দিয়ে পাঠিয়েছেন জনগণ সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকা প্রতীকেই তাদের মূল্যবান রায় দিবেন। ভোটের প্রচার প্রচারণা করতে গিয়ে নৌকার পক্ষে মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া দেখতে পেয়েছি।  

অপরদিকে জয়ের ব্যাপারে দৃঢ় প্রত্যয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী যুবলীগ নেতা নুর মোহাম্মদ জাকের হায়দার সুমন।

তিনি বলেন ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ দলের একটা বড় অংশ তার জন্য কাজ করছেন। আওয়মীলীগের তৃণমূলের ভোট তার পক্ষেই আসবে। সাধারণ মানুষও তার পক্ষেই রায় দিবেন।  

স্বতন্ত্র প্রার্থী সুমন বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল ভোটের প্রচারণায় বলে বেড়াচ্ছেন ভিন্ন দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে এসেছি। আমি তার উদ্দেশ্যে বলতে চাই, আমি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের লোক। আমি কোন দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে আসিনি, জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দিতে এসেছি। তিনি বলেন জনগণ যদি ভোট দিতে পারে তাহলে তার পক্ষে নিরব ভোট বিপ্লব হবে।

হুমকির অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর

স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর মোহাম্মদ জাকের হয়দার সুমন বলছেন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি দেয়া হচ্ছে। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে বিভিন্ন অপরিচিত মোবাইল নাম্বার থেকে ফোন করে হুমকি দেয়া হচ্ছে। তার পোস্টার ও ব্যানার লাগালেই ছিড়ে ফেলা হচ্ছে। প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু পরিবেশ দাবী করেন এ স্বতন্ত্র প্রার্থী। নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণার জন্য তিনি লেভেল প্লেইং ফিল্ড চান প্রশাসনের কাছে।

অভিযোগ অমূলক বলছেন নৌকার প্রার্থী

আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ মোস্তফা বলেছেন এসব অভিযোগ অমূলক। ভোটের মাঠে উৎসব মুখর পরিবেশ রয়েছে। যে যার মত করে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে আসছে। ভোটের প্রচারণা নিয়ে কোন ধরনের অপ্রীতির ঘটনার খবর কেউ পায়নি। অভিযোগের খাতিরে অভিযোগ করলে তো হবে না। মানুষ নৌকার পক্ষে আছে, উন্নয়নের পক্ষে আছে।

যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দেবে জনগণ

ছাগলনাইয়া পৌরসভার পশ্চিম ছাগলনাইয়া ও বাঁশপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা ভোট দিতে চায়। ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ চায়। সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ পেলে তারা যোগ্য প্রার্থীকেই নির্বাচন করবে। শাহ আলম নামের পশ্চিম ছাগলনাইয়া এলাকার এক ভোটার বলেন, ‘আমি চাই উন্নয়ন- যে প্রার্থী উন্নয়ন করবে ভোটের রায় তার দিকেই যাবে।

আজগর হোসেন নামের বাঁ পাড়ার এক ভোটার বলেন, যে প্রার্থী পৌরবাসীর জীবনমান উন্নয়ন করতে সক্ষম ভোট তারা তাকেই দিবেন।

কাউন্সিলরে নেই দলীয় প্রার্থী

মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী থাকলেও কাউন্সিল পদে নেই কোন দলীয় প্রার্থী। আর এ কারণেই তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হচ্ছে এ পদের ভোট। ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৪১ জন ও ৩টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ১১ জন প্রতিদ্বন্ধিতায় রয়েছেন।

৯টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ৮ জন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, এবং ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন। এছাড়া ১ নম্বর (১.২.৩) সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৪ জন, ২ নম্বর (৪,৫,৬) সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৩ জন, ৩ নম্বর (৭,৮,৯) সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতায় রয়েছেন।

যা বলছে কর্তৃপক্ষ

জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন পাটোয়ারী বলছেন প্রথম দিকটায় সামান্য কিছু সমস্যা হলেও বর্তমানে ছাগলনাইয়া পৌরসভার ভোটের মাঠে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশের ব্যাপারে মানুষের প্রত্যাশা পূর্ণ হবে। এখন পর্যন্ত কোন প্রার্থী লিখিত কোন ধরণের অভিযোগ করেননি।

তিনি বলেন, ভোটের পরিবেশ নিশ্চিত করতে মাঠে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছেন।

ছাগলনাইয়া পৌরসভা

২০০২ সালে ছাগলনাইয়া পৌরসভার যাত্রা শুরু হয়। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম আয়তনের পৌরসভাটির আয়তন ২৮.৫০ বর্গকিলোটার এবং ৬৫ হাজারের অধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত। আসন্ন নির্বাচনে ৩৫ হাজার ৬’শ ৫৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৮ হাজার ৬’শ ৫ জন। মহিলা ১৭ হাজার ৫৪ জন। ভোট কেন্দ্র ১৩ টি, ক্ষ ৯৩টি, অস্থায়ী কক্ষ ০৪টি। ভোট হবে ইলেকট্রনিক্স ভোটিং মেশিন ইভিএমে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩১৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
এসএইচডি/এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa