ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নির্বাচন

বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্পে আ.লীগের হামলা, আহত ৮

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২১
বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্পে আ.লীগের হামলা, আহত ৮ ...

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আল আমিন সরকারের নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা, ভাঙচুর ও মারধরের অভিযোগ উঠছে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নারীসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন।

 

রোববার (১৪ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের পুকুরপাড় এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।  

আহতদের মধ্যে ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রসুল (৩৫) ও সাকিলকে (২৫) আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও রনি (২৩), মিলন (২২) লতা খাতুনসহ (৪৫) ৬ জনকে স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।  

পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মমিন জানান, দুপুরে মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচনী ক্যাম্পে বসে বিভিন্ন এলাকায় কর্মী পাঠানো হচ্ছিল। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রাশেদুল হাসানের নেতৃত্বে ৩০/৪০টি মোটরসাইকেল নিয়ে নৌকার সমর্থকরা অতর্কিত ক্যাম্পে হামলা চালায়। তারা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর ও সমর্থকদের মারধর করে। এ সময় তারা নির্বাচনী ক্যাম্পের ২০/২৫টি চেয়ার ভাঙচুর ও আল-আমিন সরকারের কর্মীদের মারধর করে। এতে নারী ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ৮ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আল আমিন সরকার বাংলানিউজকে বলেন, আমি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে এলাকার মানুষের পাশে থেকেছি। এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। এবারও আমি প্রার্থী হয়েছি। আমার পক্ষে এলাকায় গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। মোটরসাইকেলের বিজয় নিশ্চিত জেনে নৌকার প্রার্থী ও সমর্থকেরা আমার কর্মী সমর্থকদের মারধর ও হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। তারা ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে।

তিনি আরও বলেন, দুপুরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রাশেদুল হাসান রাশেদের নেতৃত্বে এই হামলা চালিয়ে আমার নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুর করে ৮/১০ জন কর্মীকে মারধর করেছে। আমি সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানিয়েছি।  

এদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রাশেদুল হাসান বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। বিদ্রোহী প্রার্থী আল-আমিন সরকার নিজের সমর্থককে ব্লেড দিয়ে মাথা কেটে হাসপাতালে পাঠিয়েছে।  

উল্লাপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাহেদ গনি বাংলানিউজকে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আল-আমিন সরকারের নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলার চালিয়ে চেয়ার ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত দুজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৪, ২০২১
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa