ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নির্বাচন

নৌকার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, আহত ১০

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫২ ঘণ্টা, জুন ৪, ২০২২
নৌকার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, আহত ১০

বরগুনা: বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (৪ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার ফকিরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহতদের কয়েক জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন- যুবলীগের আলমগীর তালুকদার (২৫), রিফাত (২৭), স্বপন (৩০)ও  রাহাত (৩২)। বাকিদের নাম এখনো জানা যায়নি। হামলার সময় নৌকার প্রার্থী সুলতান ফরাজী লাউপাড়া এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত ছিলেন।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার ফকিরহাট বাজারে  যুবলীগ একটি বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করে। সেই মিছিলে তালতলী থেকে উপজেলা যুবলীগের নেতারা যোগ দেন। বিক্ষোভ শেষে যুবলীগ নেতারা নৌকা প্রতীকের একটি নির্বাচনী অফিসে বসে আলোচনা করছিলেন। এ সময় পাশের একটি দোকানে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস মার্কার ফরাজী ইউনুচের সমর্থকরা নৌকা নিয়ে কটূক্তিমূলক কথা বলেন। তখন নৌকার সমর্থকরা এর প্রতিবাদ করেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আনারস প্রতীকের প্রার্থীর ছেলে সজিব ফরাজী শতাধিক কর্মী-সমর্থককে নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তারা নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেন।

এ সময় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিও ভেঙে ফেলা হয়। এ ঘটনায় নৌকার ১০ জন সমর্থক গুরুতর আহত হন ও ৫টি মটরসাইকেল ভাঙচুর করে খালে ফেলে দেওয়া হয়। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

এরপর পাশেই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক উজ্জামান তনুর রয়েল ফিস নামক একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায় হামলাকারীরা।   তারা এ সময় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আসবাবপত্র ভাঙচুর ও ক্যাশ থেকে প্রায় ৫ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায় বলেও অভিযোগ করা হয়েছে।

এদিকে একই দিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরাজী ইউনুচ নিজেই নৌকার সমার্থক রফিকুল ইসলাম ও রায়হানকে মারধর করেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরাজী ইউনুচ মুঠো ফোনে বলেন, আমার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে নৌকার প্রার্থীর পক্ষের লোকজন। আমি এ বিষয়ে আপনাদের সঙ্গে পরে কথা বলব।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক-উজ্জামান তনু বলেন,  যুবলীগ নেতাদের সামনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীরা নৌকা প্রতীক নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। সেটা নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে কী হয়েছে জানি না। কিন্তু  আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে  হামলা চালাবে কেন? আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে থেকে প্রায় ৫ লাখ টাকা লুট ও ভাঙচুর করা হয়েছে।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।   এখনো কোনো পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫১ ঘণ্টা, ৪ জুন, ২০২২
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa