ঢাকা, শনিবার, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নির্বাচন

শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন মেয়র প্রার্থী লিয়াকত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৪ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২২
শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন মেয়র প্রার্থী লিয়াকত

গোপালগঞ্জ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ রকিব হোসেনকে সমর্থন দেওয়ায় শেষ মুহূর্তে নির্বাচনী মাঠ থেকে সরে দাঁড়ালেন মেয়র প্রার্থী ও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী লিয়াকত আলী লেুক।  শেখ রকিব হোসেন নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

রোববার (১২ জুন) বিকেলে শহরের মন্দারতলা এলাকার নিজ বাসবভনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

গোপালগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ১০ মেয়র প্রার্থীর মধ্যে ৭ প্রার্থী শেখ রকিব হোসেনকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। শেখ রকিব হোসেনসহ ভোটের মাঠে এখন তিনজন প্রার্থী রইলেন। এর মধ্যে শেখ মুশফিকুর লিটনের আজ সন্ধ্যায় নির্বাচনী মাঠ থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা রয়েছে। তিনিও শেখ রকিব হোসনকে সমর্থন দেবেন বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

মেয়র প্রার্থী কাজী লিয়াকত আলী লেকু বলেন, আওয়ামী লীগের নমিনেশন বোর্ড এই পৌরসভার নির্বাচন উন্মুক্ত ঘোষণা করেছিল। যে কারণে আমি মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নিয়ে প্রচার প্রচারণা করে যাচ্ছিলাম। পরে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা মেয়র প্রার্থী শেখ রকিব হোসনকে সমর্থন দিয়েছেন। তাই প্রধানমন্ত্রীর সম্মান রক্ষার্থে আমি পৌর নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছি এবং মেয়র প্রার্থী শেখ রকিব হোসেনকে সমর্থন দিয়েছি।

পরে তিনি মেয়র প্রার্থী শেখ রকিব হোসেনের প্রতীক নারিকেল গাছ মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য তার কর্মী সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে নিজের আমলকালের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর চাচা শেখ কবির হোসেন, টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার মেয়র শেখ তোজাম্মেল হক টুটুল, সদর উপজেলা আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মিটু, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ইলিয়াস হোসেনসহ তার কর্মী সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মেয়র প্রার্থী মৃনাল কান্তি রায় চৌধুরী পপা, জি এম সাহাব উদ্দিন আজম, মো. রেজাউল হক সিকদার রাজু, দীলিপ কুমার সাহা দীপু, মো. আবুল ফত্তাহ সজু, এস এম নজরুল ইসলাম নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।  

ফলে নির্বাচনে অংশ নেওয়া ১০ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্য ৭ জন প্রার্থী সরে যাওয়ায় নির্বাচনী মাঠে এখন তিনজন প্রার্থী প্রচারণায় রয়েছেন। এর মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মো. দিদারুল ইসলাম হাতপাখা প্রতীকে নির্বাচন করছেন।  

আগামী ১৫ জুন গোপালগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa